Alexa ‘বাছাইপর্বে উত্তীর্ণ হওয়াটই মুখ্য বিষয়’

‘বাছাইপর্বে উত্তীর্ণ হওয়াটই মুখ্য বিষয়’

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৫৪ ১২ জুন ২০১৯  

ছবি : বাফুফে

ছবি : বাফুফে

কাতার বিশ্বকাপ বাছাইয়ের চূড়ান্ত পর্ব নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ফুটবল দল। প্রাক বাছাইপর্বে লাওসকে ১-০ তে হারিয়ে এ সুযোগ অর্জন করেছে জেমি ডের শিষ্যরা। কোচ এ ব্যাপারে শিষ্যদের পারফরমেনসকেই মূল্যায়িত করলেন।

মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রাক বাছাইয়ের দ্বিতীয় লেগে লাওসের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে লাল সবুজের বাংলাদেশ। তবে লাওসের মাটিতে ১-০ গোলের জয় নিয়ে দেশে ফিরেছিল জামাল ভূঁইয়ারা। এই এক জয়ই শাপে বর হলো বাংলাদেশের জন্য। প্রথম লেগে পাওয়া ১-০ গোলের জয়ে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের মূল পর্বে পা রাখে জামাল ভূঁইয়ার দল।

দুই লেগ মিলে বাঁধা পেরোলেও ঘরের মাঠে প্রত্যাশা অনুযায়ী ফুটবল খেলতে পারেনি বাংলাদেশ। বাংলাদেশ একজন যোগ্য ফরোয়ার্ডের অভাব পূরন হলো না। যার জন্য পুরো ম্যাচজুড়েই গোল মিসের হতাশায় পুড়তে হয় স্বাগতিকদের। না হলে ম্যাচের ফলাফল হতে পারতো অন্য রকম।

তবে কোচ জেমি ডে তার শিষ্যদের পারফরম্যান্সে খুশি। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘বাছাইপর্ব উত্তীর্ণ হওয়াটই বড়। ভালো ফুটবল বা খারাপ ফুটবল খেলা মুখ্য বিষয় নয়। পরপর তিনটি আন্তর্জাতিক ম্যাচে অপরাজিত আমরা এটা বড় অর্জন। ড্র করে চূড়ান্ত নিশ্চিত করেছি, এটাই আমার কাছে মূল বিষয়।’

 অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া বলেন, ‘গোল না খাওয়ার দিকে মনযোগ ছিলো। ভালো ফুটবল খেলে হেরে যাওয়ার কোনো মানে নেই। এক এক ম্যাচের পরিকল্পনা এক এক রকম হয়। প্রয়োজনে কখনো আক্রমণাত্মক খেলতে হয়, কখনো রক্ষণাত্মক খেলতে হয়। লক্ষ্য অর্জন করাটাই স্বস্তিদায়ক।’

এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন-এএফসি অঞ্চলের প্রথম পর্ব থেকে ছয়টি দল নিয়ে দ্বিতীয় পর্বে মোট ৪০টি দল আটটি গ্রুপে ভাগ হয়ে দ্বিতীয় পর্বে অংশ নেবে। এরপর পর্যায়ক্রমে তৃতীয় ও চতুর্থ পর্ব শেষে সেরা চারটি দল সরাসরি বিশ্বকাপে এবং পঞ্চম দলটির সুযোগ থাকে প্লে-অফ ম্যাচ জিতে বিশ্বকাপে জায়গা করে নেয়ার।

 ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস