Alexa বর্বরোচিত তুহিন হত্যার আসামিদের পক্ষে লড়বেন না আইনজীবীরা 

বর্বরোচিত তুহিন হত্যার আসামিদের পক্ষে লড়বেন না আইনজীবীরা 

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:১৪ ১৭ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ১১:১৭ ১৭ অক্টোবর ২০১৯

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ের কেজাউড়া গ্রামে শিশু তুহিনকে বর্বরোচিতভাবে হত্যার স্বীকারোক্তি দিয়েছে তার বাবা ও চাচা। তাই তাদের পক্ষে আদালতে আইনি লড়াই করবেন না স্থানীয় আইনজীবীরা।

বুধবার বিকেলে আদালতের সামনে জেলা আইনজীবী সমিতির আয়োজিত এক মানববন্ধনে এ কথা জানান সমিতির নেতারা।

মানববন্ধনে আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট হুমায়ূন মঞ্জুর বলেন, দিরাইয়ে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে স্বজনরা নির্মমভাবে তুহিনকে হত্যা করে। এরপর গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। এ হত্যা পৈশাচিক। যার প্রতিক্রিয়া জানানোর ভাষা জানা নেই। নিহত তুহিনের মামলা নিজ খরচে চালাবো। এছাড়া আসামিদের পক্ষে সুনামগঞ্জ আইনজীবী সমিতির কোনো সদস্য আদালতে দাঁড়াবে না।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মো. চাঁন মিয়া বলেন, ঘর থেকে ঘুমন্ত শিশু তুহিনকে কোলে করে বাইরে নিয়ে আসে বাবা, নৃশংসভাবে বা বরর্বোচিতভাবে হত্যা করে চাচা। এমন ঘটনা বাংলাদেশে প্রথম। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই। এমন ঘটনা যেন আর না ঘটে। সে জন্য আমাদের সমাজকে পরিবর্তন করতে হবে। সমাজে চলমান সংঘাত-হিংসা চলছে তা থেকে আমাদের সরে আসতে হবে। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, তুহিন হত্যাকাণ্ডে যারা জড়িত তাদের পক্ষে কোনো আইনজীবী লড়বেন না।

সুনামগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত এসপি মিজানুর রহমান বলেন, শিশু তুহিন হত্যার সঙ্গে যারা জড়িত আমরা তাদের আইনের আওতায় এনেছি। দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থার চেষ্টা করব। এমন ঘটনা যেন আর না ঘটে, সে জন্য আমাদের যা যা করা প্রয়োজন তাই করব।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) সকাল ১০টায় উপজেলার রাজানগর ইউপির গচিয়া কেজাউড়াগ্রামের একটি গাছ থেকে তুহিনের জবাই করা ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের সময় তার লিঙ্গ, দুটি কান কাটা ছিল। এছাড়া তার পেটে দুটি ছুরি ঢোকানো ছিল। নিহত তুহিন ওই গ্রামের আবদুল বছির মিয়ার ছেলে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ