বরের বিয়ে-সৎকারে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত ১১১

বরের বিয়ে-সৎকারে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত ১১১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২১:০৮ ১ জুলাই ২০২০  

করোনাভাইরাসের উপসর্গ জ্বর পরীক্ষা করা হচ্ছে।

করোনাভাইরাসের উপসর্গ জ্বর পরীক্ষা করা হচ্ছে।

ভারতের বিহারে বিয়ের দুই দিন পর বরের মৃত্যু ও তার সৎকারে উপস্থিত লোকদের মধ্যে ১১১ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

স্থানীয় প্রশাসন বুধবার জানায়, গত ১৫ জুন করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে বিয়ে করেন ২৬ বছরের বর। বিয়ের দুইদিন পরই তার মৃত্যু হয়।  

পাটনার প্রধান মেডিকেল কর্মকর্তা রাজ কিশোর চৌধুরী জানান, ওই বরের বিয়ে ও মৃত্যুর পর সৎকারে আসা লোকদের মধ্যে এখনো ১১১ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া অন্য সবাইকে চিহ্নিত করে আইসোলোশনে থাকার কথা বলা হয়েছে।

তবে চিকিৎসকরা ওই বরের কাছ থেকে করোনাভাইরাস ছড়ানোর ব্যাপারে নিশ্চিত নন। কারণ তাকে সৎকার করার আগে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হয়নি।

রাজ কিশোর চৌধুরী জানান, সেই বরের বিয়েতে ৪০০ লোক অংশ নিয়েছিলেন এবং মৃত্যুর পর সৎকারে অংশ নেন ২০০ লোক। তাদের সংক্রমণের বিষয়টি অবগত করে ভাইরাসটির দৌড় থামাতে আইসোলেশনে থাকার কথা বলা হয়েছে।

পেশায় সফটওয্যার ইঞ্জিনিয়ার ওই বর বিয়ের এক সপ্তাহ আগে নিউ দিল্লি থেকে বাড়ি ফেরেন। বিয়ের আগ মুহূর্তে তার মধ্যে করোনার উপসর্গ দেখা গিয়েছিল। তাকে অল্প সময়ের জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

কিন্তু পরিবার দ্রুত হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে ৩০০ অতিথি সহকারে বিয়ের আয়োজন করেন। দুইদিন পর বরের মৃত্যু হয়। এতে ২০০ মানুষ সৎকারে উপস্থিত ছিলেন। শনাক্তদের মধ্যে অনেকে বিয়ে ও সৎকারে উপস্থিত ছিলেন।

তবে বরের আত্মীয় ও তার নববধূর শরীরে করোনাভাইরাস পরীক্ষায় পজেটিভ আসেনি বলে স্থানীয় প্রশাসন জানায়। স্থানীয় প্রশাসন বিয়ে ও সৎকারে উপস্থিত থাকা লোকদের শনাক্ত করতে অনুসন্ধান করেছে।

এদিকে ৫০ জনের অধিক অতিথি নিয়ে বিয়ের আয়োজনের অনুমতি নেই ভারতে। এছাড়া সৎকারে মাত্র ২০ জন অংশ নিতে পারবেন।
 
এখনো ভারতের বিহারে ১০ হাজার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে মারা গেছেন ৬২ জন। আর পুরো ভারতে ছয় লাখ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। আর ১৭ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

সূত্র- এনডিটিভি

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ