বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রকে মুখ বেঁধে মারধর ও নির্যাতন

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রকে মুখ বেঁধে মারধর ও নির্যাতন

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৩১ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৫:৩২ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

নির্যাতিত মোহাম্মদ শাহজালাল

নির্যাতিত মোহাম্মদ শাহজালাল

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে শেরে বাংলা হলের ১০০১ নম্বর রুমে ডেকে নিয়ে মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। নির্যাতিত মোহাম্মদ শাহজালাল ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিভাগের মাস্টার্সে পড়ছেন।   

শাহ জালাল জানায়, ৪০১৬ নম্বর রুমে ছিলেন তিনি। এ সময় জিওলজি অ্যান্ড মাইনিং বিভাগের শান্ত তাকে জরুরি কথা আছে বলে ১০০১ নম্বর রুমে নিয়ে যায়। সেখানে ঢোকার পর দরজা বন্ধ করে দেয়। এরপর তার মুখ বেঁধে মারধর ও নির্যাতন করা হয়। ওই রুমে তখন চারজন পরিচিতসহ কমপক্ষে ৮জন ছিলো। সবার হাতে ছিলো রড ও দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র। এরা শাহজালালের সামনেই তাকে কোথায় নিয়ে মারধর করবে সে বিষয়ে আলাপ করছিলো। সবার চোখ ফাঁকি দিয়ে দরজার সিটকানি দ্রুত খুলে দৌঁড়ে পালিয়ে ৪০১৪নম্বর রুমে আশ্রয় নেয়। সেখানে গিয়ে ধাওয়া করে আনতে চায় অভিযুক্তরা। কিন্তু ওই রুমে থাকা শিক্ষার্থীরা প্রতিরোধ গড়ে তুললে অভিযুক্তরা ব্যর্থ হয়।

শাহজালাল জানায়, বিকেলে বঙ্গবন্ধু হলের বাংলা বিভাগের নাভিদ ও অর্থনীতি বিভাগের মোহাম্মদ সাইদের মধ্যে কক্ষ পরিবর্তন করা নিয়ে হামলা পাল্টা হামলা হয়। এর জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় সাইদ গ্রুপের চারজন আহত হয়ে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি হয়। এরই জের ধরে সাইদের পক্ষের লোকজন শাহজালালের উপর নির্যাতন চালায়। এ ঘটনার বিচার দাবি করেছে শাহজালালের সহপাঠীরা।

এ ঘটনায় বুধবার সভা করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রভোস্ট ইব্রাহিম মোল্লা। তিনি বলেন, বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম