বন্যায় ভেসে গেল মজনুর স্বপ্ন

বন্যায় ভেসে গেল মজনুর স্বপ্ন

জামালপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৮:১২ ৬ জুলাই ২০২০  

কৃষক আবু তালেব মজনু

কৃষক আবু তালেব মজনু

সম্পত্তি বিক্রি ও ধারদেনা করে হাঁসের খামার করার স্বপ্ন দেখছিলেন জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার বেলগাছা ইউপির ধনতলা গ্রামের কৃষক আবু তালেব মজনু। বন্যায় খড়কুটোর মতো ভেসে গেল সে স্বপ্ন। বানের পানি ভাসিয়ে নিয়ে গেছে তার ৪শ’ হাঁস।

কিছু হাঁস রক্ষা করতে পেরেছিলেন মজনু। রোববার দুপুরে বাড়ির পাশেই সেসব হাঁসকে খাবার দিচ্ছিলেন তিনি। তখনই কথা হয় মজনুর সঙ্গে।

তিনি জানান, স্ত্রী আর তিন ছেলেমেয়ে নিয়ে তার সংসার। অন্যের জমিতে দিনমজুরের কাজ করে কোনোরকম সংসার চলছিল। সন্তানদের পড়াশোনা আর সংসার খরচ চালাতে বাড়িতেই একটি হাঁসের খামার করেন। সেখানে ৮শ’ হাঁসের বাচ্চা লালন-পালন শুরু করেন। হাঁসের ডিম বিক্রি করে ভালোই চলছিল তার সংসার। এরইমধ্যে হানা দিলো দুঃস্বপ্ন।

মজনুর খামারের হাঁস

মজনু জানান, ১২ দিন আগে বন্যার কারণে যমুনা নদীতে স্রোত বাড়ে। সেই স্রোতে ভেসে যায় তার খামারের প্রায় ৪শ’ হাঁস। একদিকে ফসল তলিয়ে গেছে, অন্যদিকে খামারের এতগুলো হাঁস ভেসে গেছে। এতে উভয় সঙ্কটে পড়েছেন তিনি।

বেঁচে যাওয়া কিছু হাঁস জালের বেড়া দিয়ে আটকে রেখেছেন মজনু। কিন্তু এতে তো সংসার চলে না। নিজেদের খাবারই জোটে না, হাঁসের খাবার কোথায় পাবেন? দু’বেলা খাবার জোগার করাই যেখানে কষ্টসাধ্য, সন্তানদের পড়াশোনার খরচ চালানো সেখানে দুঃস্বপ্ন।

কৃষক আবু তালেব মজনুর মতোই মানবেতর জীবনযাপন করছেন ইসলামপুরের যমুনা পাড়ের অসংখ্য মানুষ। সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, বন্যা কবলিত এলাকায় পানি কমলেও সমস্যা কাটেনি নিম্নাঞ্চলের মানুষের। ফসল নষ্ট হয়ে গেছে, রাস্তাঘাট ভেঙে গেছে, খাবার-বিশুদ্ধ পানির সঙ্কট দেখা দিয়েছে। বন্যায় ভেসে গেছে অনেকের ঘেরের মাছ, খামারের হাস-মুরগি।

জামালপুরের ডিসি মোহাম্মদ এনামুল হক জানান, আগাম বন্যায় নিম্নবিত্ত অনেক মানুষের ক্ষতি হয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের প্রয়োজনীয় ত্রাণ ও আর্থিক সহায়তা দেয়া হচ্ছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর