ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে টেনিসের তারকারা 

ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে টেনিসের তারকারা 

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৪১ ৪ জুন ২০২০  

টেনিস দুনিয়ার মহাত্রয়ী নোভাক জোকোভিচ, রজার ফেদেরার এবং রাফায়েল নাদাল

টেনিস দুনিয়ার মহাত্রয়ী নোভাক জোকোভিচ, রজার ফেদেরার এবং রাফায়েল নাদাল

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বর্ণবৈষম্যের কারণে হত্যার শিকার হয়েছেন আফ্রিকান-আমেরিকান নাগরিক জর্জ ফ্লয়েড। তার মৃত্যু ছুঁয়ে গেছে পুরো বিশ্বকে। ক্রীড়াঙ্গনেও পড়েছে এর প্রভাব। ক্রীড়া দুনিয়ার তারকারাও একের পরে এক মুখ খুলেছেন। এবার সেই প্রতিবাদে সামিল হলেন টেনিস দুনিয়ার মহাত্রয়ী রজার ফেদেরার, রাফায়েল নাদাল এবং নোভাক জোকোভিচ।

তারা বর্ণবৈষম্যের প্রতিবাদে প্রতীকী ছবি হিসেবে কালো স্ক্রিনশট পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। #ব্ল্যাকআউট টিউসডে নামে টুইটার প্রচারে এভাবে অংশ নেন। 

জোকোভিচ সঙ্গে বার্তা দেন, ‘কৃষ্ণাঙ্গ জীবনেরও মূল্য রয়েছে’। 

যে বার্তাটি কয়েক দিন ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করা হচ্ছে। এছাড়া গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী মারিয়া শারাপোভা, পেত্রা কুইটোভা এবং স্ট্যান ওয়ারিঙ্কাও সমর্থন জানিয়েছেন বর্ণবষম্যের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে।

ফেদেরারের ইনস্টাগ্রাম পোস্টে ১৬ বছর বয়সি গফ তেমনই ইঙ্গিত করেন।

আফ্রিকান-আমেরিকান তারকা কোকো গফ এবং জাপানের নাওমি ওসাকাও তাদের রাগ চেপে রাখতে পারেননি ফ্লয়েডের মৃত্যু নিয়ে। শুধু কালো স্ক্রিনশট পোস্ট করাই নয়, আরও সক্রিয় ভাবে সবাইকে বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধে এগিয়ে আসারও আহ্বান জানান তারা।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টেনিস সংস্থাও প্রতিবাদে যোগ দিয়ে বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, ‘আফ্রিকান-আমেরিকানরা আমাদের টেনিস পরিবারের অবিচ্ছেদ্য অংশ। মার্কিন টেনিস সংস্থা বর্ণবৈষম্য এবং যে কোনও অন্যায়ের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে বদ্ধপরিকর’।

ফ্লয়েডের মৃত্যু নিয়ে যে ফুটবলারেরা মাঠে প্রতিবাদ জানিয়েছেন, তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে ফিফা এবং উয়েফাও। যেমন বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের জাডন স্যাঞ্চো। তিনি বুন্দেসলিগায় গোল করার পরে জার্সি খুলে ভিতরে পরা টি-শার্ট দেখান। যাতে লেখা ছিল, ‘জর্জ ফ্লয়েড হত্যার বিচার চাই’।
‘অফিসার, আমি শ্বাস নিতে পারছি না। নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে আসছে, আমার খুব কষ্ট হচ্ছে। আমার বুকে, ঘাড়ে প্রচন্ড ব্যাথা লাগছে। আমি দয়া করে কিছু পানি চাই, কিছু খেতে চাই।’- আট মিনিটের অসহনীয় কষ্ট নিয়ে মরার আগে এভাবেই আর্তনাদ করে গেছেন কালো রঙের আফ্রো আমেরিকান জর্জ ফ্লয়েড। কিন্তু কিছুতেই মন গলেনি সাদা চামড়ার পুলিশ সদস্য ডেরেক চাওভিনের। এই ভিডিও ভাইরাল হতেই উত্তাল যুক্তরাষ্ট্র, উত্তাল সারা বিশ্ব।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস