দূরবীনপ্রথম প্রহর

ফেব্রুয়ারিতে সংরক্ষিত ও মার্চে উপজেলা নির্বাচন

নিজস্ব প্রতিবেদকডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
মো. হেলালুদ্দীন আহমদ। ফাইল ছবি

ফেব্রুয়ারিতে একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত ৫০ নারী আসন এবং মার্চে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রক্রিয়া শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ লক্ষে সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচনের তফসিল আগামী সপ্তাহেই ঘোষণা করা হবে। আর আগামী মাসের প্রথম দিকে ঘোষিত হবে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এই তথ্য জানান নির্বাচন কমিশন সচিব মো. হেলালুদ্দীন আহমদ।

একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের নির্বাচন প্রসঙ্গে ইসি সচিব বলেন, আগামী সপ্তাহে সংরক্ষিত মহিলা আসনের তফসিল ঘোষণা করা হবে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রাপ্ত আসন অনুসারে সংরক্ষিত ৫০টি আসনের মধ্যে এবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ৪৩টি, জাতীয় পার্টি ৪টি, ঐক্যফ্রন্ট ১টি এবং স্বতন্ত্র ও অন্যান্য দল মিলে ২টি আসন পাবে।

গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ জোট। এর মধ্যে এককভাবে আওয়ামী লীগ ২৫৭টি, জাতীয় পার্টি ২২টি, বিকল্পধারা বাংলাদেশ ২টি, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি ৩টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ ২টি, জাতীয় পার্টি-জেপি ১টি এবং তরিকত ফেডারেশন ১টি আসনে জয় পেয়েছে। বিএনপিসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট পায় ৭টি আসন। আর বুধবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের তিনটি কেন্দ্রে নির্বাচনের পর আসনটিতে জয় পায় বিএনপি।

এদিকে মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকে ধাপে ধাপে সারাদেশে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন শুরু হবে বলে জানান সচিব। তিনি জানান, ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি পরীক্ষা এবং এপ্রিলে এইচএসসি পরীক্ষা থাকার কারণে ২০২০ সালের জানুয়ারির শেষে অথবা ফেব্রুয়ারিতে তফসিল দেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। আর ভোটগ্রহণ শুরু হবে মার্চে। এ নির্বাচনেও সীমিত আকারে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের পরিকল্পনা রয়েছে সংস্থাটির।

উপজেলা পরিষদ আইন, ১৯৯৮ এর ১৭(১)(গ) ধারা অনুযায়ী, উপজেলা পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়ার তারিখের আগের ১৮০ দিনের মধ্যে ভোটগ্রহণের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। পরিষদের প্রথম বৈঠক থেকে মেয়াদ শুরু হয়। সর্বশেষ ২০১৪ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি ৯৭টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ওই বছরের জুন-জুলাইয়ে সব মিলিয়ে সাত ধাপে প্রায় ৪৮৬টি উপজেলা পরিষদে নির্বাচন হয়েছিল। ওই বছরের ভিন্ন ভিন্ন সময়ে উপজেলা পরিষদগুলোতে প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। ফলে এরই মধ্যে অর্ধেকের বেশি উপজেলা পরিষদ ভোটগ্রহণের উপযোগী হয়েছে।

এছাড়া আগামী এপ্রিল মাসে প্রবাসীদের ভোটার করার কাজ শুরু করা হবে বলেও জানান মো. হেলালুদ্দীন। তিনি জানান, প্রথমে পাইলট প্রকল্প হিসেবে সিঙ্গাপুরে যেসব বাংলাদেশিরা থাকেন তাদেরকে ভোটার করা হবে। ৫ থেকে ৭ দিনের মধ্যে তাদেরকে ভোটার করতে একটি টিম সিঙ্গাপুরে যাবে। এরপর দুবাইতে প্রবাসীদের ভোটার করার কার্যক্রম শুরু করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেবি/জেডআর