ফেনীতে ডিম খাওয়ার অপরাধে দত্তক মেয়েকে নির্যাতন

ফেনীতে ডিম খাওয়ার অপরাধে দত্তক মেয়েকে নির্যাতন

ফেনী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:১০ ৯ জুলাই ২০২০  

আহত মৃদুলা (বামে), আটক দম্পতি

আহত মৃদুলা (বামে), আটক দম্পতি

ফেনীর রামপুরে ডিম খাওয়ার অপরাধে দত্তক মেয়েকে নির্মম নির্যাতন করেছে বাবা মা। গভীর রাতে কান্নাকাটি করায় আহত অবস্থায় তাকে বাইরে ফেলে রেখে যায় তারা। বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে গুরুতর আহত অবস্থায় মেয়েটিকে উদ্ধার করে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে র‌্যাব। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দম্পতিকে আটক করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী নাজনিন আক্তার মৃদুলা ফুলগাজী উপজেলার দরবারপুরের বাসিন্দা।

স্থানীয়রা জানায়, জামাল উদ্দিন-নাজমা আক্তার দম্পতির চার ছেলে। তাদের মেয়ে না থাকায় ছয় বছর আগে ফুলগাজীর দরবারপুর থেকে নাজনিন আক্তার মৃদুলাকে দত্তক নেন। মেয়ে হিসেবে দত্তক নিলেও তার সঙ্গে কাজের মেয়ের মতো ব্যবহার করা হতো। বাড়ির কোনো কাজে ব্যাঘাত ঘটলেই তার উপর চালানো হতো নির্যাতন।

র‌্যাব-৭ এর ফেনী সিপিসি’র ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মো. নুরুজ্জামান জানান, বুধবার রাতে ডিম খাওয়ার অপরাধে তার উপর নির্যাতন চালায় জামাল-নাজমা দম্পতি। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় বাইরে ফেলে রাখে। খবর পেয়ে ফেনী শহরের রামপুরের বাসা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

র‍্যাব কর্মকর্তা নুরুজ্জামান আরো জানান, অভিযুক্ত জামাল উদ্দিন ও তার স্ত্রী নাজমা আক্তারকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। শিশু মৃদুলা সুস্থ হলে সমাজসেবা কার্যালয়ের মাধ্যমে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ফেনী জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডা. মো. ইকবাল হোসেন জানান, মৃদুলাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত রয়েছে। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর