Alexa প্রয়োজনের অতিরিক্ত লবণ কিনলেই শাস্তি

প্রয়োজনের অতিরিক্ত লবণ কিনলেই শাস্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৪৫ ১৯ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৯:৫৮ ১৯ নভেম্বর ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রয়োজনের অতিরিক্ত লবণ কিনে মজুদ রাখার প্রমাণ পেলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তেজগাঁও থানার ওসি শামীম অর রশীদ।

মঙ্গলবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার পরিদর্শনের পর তিনি এ কথা জানান।

শামীম অর রশীদ বলেন, বিক্রেতাদের মধ্যে দাম বাড়ানোর কোনো প্রবণতা দেখিনি। নির্দেশনা দিয়েছি, যতটুকু লবণ প্রয়োজন ততটুকু কেনার। দোকানদারদের বলেছি, কেউ যদি বেশি লবণ কিনতে চায় তাহলে আমাদের যেন জানানো হয়। তাকে ধরে জিজ্ঞাসা করা হবে, এক সপ্তাহে তার লবণের দরকার এক কেজি, কেন একসঙ্গে দশ কেজি লবণ কিনছেন। এই রকম মজুদদারি যারা করবে, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কারওয়ান বাজারের এক ব্যবসায়ী বলেন, কিছু অসাধু লোক ফেসবুকে এগুলো ভাইরাল করে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। এজন্য যার সারা মাসে এক কেজি লবণ লাগে না, সে দশ কেজির জন্য পাগল করে ফেলছে।

তিনি বলেন, এসিআই কোম্পানিতে ফোন দিলে তারা জানায়, গোডাউনের পর্যাপ্ত লবণ আছে। কোনো দাম বাড়েনি।
 
দেশে বর্তমানে প্রয়োজনের চেয়ে অনেক বেশি লবণ মজুদ আছে বলে জানিয়েছে শিল্প মন্ত্রণালয়। 

মঙ্গলবার মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশে সাড়ে ৬ লাখ মেট্রিক টনের বেশি ভোজ্য লবণ মজুদ রয়েছে। এর মধ্যে কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের লবণ চাষিদের কাছে ৪ লাখ ৫ হাজার মেট্রিক টন এবং বিভিন্ন লবণ মিলের গুদামে ২ লাখ ৪৫ হাজার মেট্রিক টন লবণ মজুদ রয়েছে।

এতে বলা হয়, সারা দেশে বিভিন্ন লবণ কোম্পানির ডিলার, পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণে লবণ মজুদ রয়েছে।  
 
লবণের দাম বৃদ্ধি সংক্রান্ত কোনো ধরনের গুজবে বিভ্রান্ত না হতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে শিল্প মন্ত্রণালয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে