Alexa প্রেমিকাকে না দেয়ায় বন্ধুর হাতে খুন হন মাওলা

প্রেমিকাকে না দেয়ায় বন্ধুর হাতে খুন হন মাওলা

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৮:৩০ ১৬ নভেম্বর ২০১৯  

নিহত মো. মাওলা

নিহত মো. মাওলা

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে প্রেমিকার সঙ্গে বিচ্ছেদ না করায় মো. মাওলা নামে এক কিশোরকে খুন করেছেন বন্ধুরা।

শনিবার সকালে উপজেলার পূর্বাচল এলাকার ১০নম্বর সেক্টরের একটি ঝোপের ভেতর থেকে তার হাত-পা বাঁধা অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে নিহতের তিন বন্ধুকে আটক করা হয়েছে।

নিহত মাওলা উপজেলার ভোলাব ইউপির পাইস্কা এলাকার কাঠমিস্ত্রি এখলাছ উদ্দিনের ছেলে। তিনি পেশায় অটোচালক ছিলেন।

নিহতের স্বজনদের বরাত দিয়ে রূপগঞ্জ থানার এসআই নাজিম উদ্দিন জানান, ১৩ নভেম্বর বিকেলে রিজার্ভ ভাড়ার কথা বলে একই এলাকার বন্ধু কাউসার ও সবুজ মোবাইলে মাওলাকে ডেকে নেন। এরপর থেকে তিনি আর বাড়ি ফেরেননি। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে পরদিন বিকেলে মাওলার বাবা থানায় একটি জিডি করেন। জিডির তদন্ত করতে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় শুক্রবার রাতে মাওলার মোবাইলসহ কাঞ্চন পৌরসভার তারাইল এলাকার মানিকের ছেলে নাছিমকে আটক করে। তার দেয়া তথ্যমতে পাইস্কা এলাকার সানাউল্যার ছেলে সহযোগী কাউসার ও মান্নানের ছেলে সবুজকে আটক করা হয়। আটকদের স্বীকারোক্তিতে শনিবার সকালে মাওলার অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এসআই নাজিম আরো জানান, মাওলার সঙ্গে এক মাদরাসাছাত্রীর প্রেম ছিল। নাছিমও ওই মেয়েকে পছন্দ করতেন। প্রেমিকার জীবন থেকে সরে যেতে একাধিকবার বললেও নাছিমের কথা প্রত্যাখ্যান করেন মাওলা। এরই জের ধরে নাছিম, সবুজ, কাউসারসহ আরো কয়েকজন মাওলাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনা অনুযায়ী রিজার্ভ ভাড়ার কথা বলে মাওলাকে বাড়ি থেকে ডেকে নেন কাউসার। ওই দিন রাতেই পূর্বাচল এলাকায় একটি ঝোপের ভেতর নিয়ে হাত-পা বেঁধে শ্বাসরোধে হত্যা করেন।

রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহামুদুল হাসান বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাদে আটকরা হত্যার কথা স্বীকার করেন। এ ঘটনায় আরো কয়েকজন জড়িত রয়েছে। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর