Alexa প্রসূতির পেটে গজ-ব্যান্ডেজ রেখেই সেলাই, তীব্র যন্ত্রণায় মৃত্যু 

প্রসূতির পেটে গজ-ব্যান্ডেজ রেখেই সেলাই, তীব্র যন্ত্রণায় মৃত্যু 

রংপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২১:২২ ১৮ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ২২:৫৫ ১৮ নভেম্বর ২০১৯

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

রংপুর নগরীর রোজ প্রাইভেট হাসপাতালে সিজারে নবজাতক প্রসবের পর পেটের ভেতরে গজ-ব্যান্ডেজ রেখে সেলাই করেছেন চিকিৎসকরা।

রোগীর স্বজন ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, ৫ নভেম্বর নাসিমা বেগম নামের এক নারী রোজ প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি হন। ওইদিনই সিজারের মাধ্যমে একটি ছেলে সন্তান প্রসব করেন তিনি।  

এরপর ১৫ নভেম্বর তীব্র ব্যথা অনুভব হলে নাসিমা বেগমকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে আলট্রাসনোগ্রাম করার পর পেটের ভেতরে গজ-ব্যান্ডেজের অস্তিত্ব ধরা পড়ে। রোববার বিকেলে আবারো অস্ত্রোপচার করে গজ-ব্যান্ডেজ বের করেন চিকিৎসকরা। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে মারা যান তিনি।

এ ব্যাপারে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. স্বপন জানান, অস্ত্রোপচারের সময় প্রসূতির পেটের ভেতরে গজ-ব্যান্ডেজসহ আরো কিছু জিনিস পাওয়া যায়। রোগীর অবস্থা এমনিতেই গুরুতর ছিল। তার পেট ফুলে গিয়েছিল। ভেতরে রক্তক্ষরণ হওয়ায় রোগীকে আর বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

নাসিমা বেগম মারা যাওয়ার খবরে রোজ হাসপাতালের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা পালিয়ে গেছেন। স্বজনদের অভিযোগ, সিজারের পর পেটের ভেতরে গজ-ব্যান্ডেজ রেখে সেলাই দেয়ায় নাসিমা মারা গেছেন। এজন্য দায়ী চিকিৎসক-নার্সসহ রোজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তারা। 

এদিকে রোজ প্রাইভেট হাসপাতালের ম্যানেজার মিলন সিজারের কথা স্বীকার করে বলেন, রোগীর পেটে ইনফেকশন ছিল। 

এ ব্যাপারে রংপুরের সিভিল সার্জন ডা. হিরম্ব বর্ম্মন জানান, এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অভিযুক্ত প্রাইভেট হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে/এমকেএ