Alexa প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, ইউপি সদস্যকে গণধোলাই!

প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, ইউপি সদস্যকে গণধোলাই!

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:২৭ ২১ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৭:২৮ ২১ নভেম্বর ২০১৯

অভিযুক্ত ইয়াকুব আলী

অভিযুক্ত ইয়াকুব আলী

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে মালয়শিয়া প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ার অভিযোগে ইয়াকুব আলী নামের এক ইউপি সদস্যকে গণধোলাই দেয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

বুধবার রাতে উপজেলার সহদেবপুর ইউপিতে এ ঘটনা ঘটে। গণধোলাইয়ে শিকার ইয়াকুব ওই ইউপির আকুয়া গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে ও ৮ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য।

ইউপি সদস্যের প্রতিবেশি আলাউদ্দিন, মিণ্টু মিয়া, নজরুল, তুফালসহ অনেকে জানান, দীর্ঘদিন ধরে আকুয়া গ্রামের জনৈক মালয়েশিয়া প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে ইউপি সদস্য ইয়াকুব আলীর পরকীয়া চলছিল। ঘটনাটি জানাজানি হলে বুধবার রাতে প্রবাসীর ভাইয়েরা বিষয়টি সমাজিকভাবে সমাধানের লক্ষ্যে বৈঠকে বসেন। এ খবর পেয়ে ইউপি সদস্য ইয়াকুব আলী লোহার রডসহ ওই বৈঠকে হামলা করেন। হামলায় এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হন। পরে বৈঠকের লোকসহ আশপাশের লোকেরা ক্ষুব্ধ হয়ে ইয়াকুব আলীকে গণধোলাই দেন। ঘটনার পর তাকে টাঙ্গাইল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তারা আরো জানান, দুইজন স্ত্রী থাকা অবস্থায় অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত ইয়াকুব আলী। নৈতিক স্থলনের কারণে তাকে ইউপি সদস্যের পদ থেকে অপসারণের দাবি জানান তারা।

এ ব্যাপারে সহদেবপুর ইউপির সদস্য ইয়াকুব আলীর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায়নি।

সহদেবপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান বালা জানান, পরকীয়ার বিষয়টি অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক। কিন্তু ইউপি সদস্যকে গণধোলাই না দিয়ে পুলিশে দেয়া উচিত ছিল।

কালিহাতী থানার ওসি হাসান আল মামুন বলেন, ইউপি সদস্যকে গণধোলাই দেয়ার বিষয়টি অবগত নই। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ