প্রধানমন্ত্রীর স্বর্ণপদক পেলেন ১৭২ শিক্ষার্থী

প্রধানমন্ত্রীর স্বর্ণপদক পেলেন ১৭২ শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:০৮ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৬:১২ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজ কার্যালয়ে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতি শিক্ষার্থীদের ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক-২০১৮’ প্রদান করেন- পিআইডি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজ কার্যালয়ে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতি শিক্ষার্থীদের ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক-২০১৮’ প্রদান করেন- পিআইডি

সরকারি ও বেসরকারি ৩৬ বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭২ শিক্ষার্থী পেলেন ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’।

বুধবার সকালে তার কার্যালয়ের (পিএমও) শাপলা হলে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের সর্বোচ্চ নম্বর অথবা সিজিপিএ প্রাপ্তদের হাতে ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক-২০১৮’ তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত দেশের ৩৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭২ জন মেধাবী শিক্ষার্থীর মধ্যে ৮৪ জন ছাত্র এবং নেপালের একজনসহ ৮৮ জন ছাত্রী রয়েছে। এর আগে ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পান ১৬৩ জন শিক্ষার্থী। অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন।

ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক কাজী শহিদুল্লাহ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এ সময় স্বাগত বক্তব্য দেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক এবং উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো.মাহবুব হোসেন।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব ফিশারিজ টেকনোলজি’র শিক্ষার্থী মো. মোবারক হোসেন এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজের শারমিন সুলতানা অনুষ্ঠানে পুরস্কার বিজয়ীদের পক্ষে নিজস্ব অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন- শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড.আহমদ কায়কাউস এবং ইউজিসি’র সদস্য অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন।

মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব এবং সচিব, জাতীয় অধ্যাপক, সাবেক ইউজিসি চেয়ারম্যান, বর্তমান এবং সাবেক ইউজিসি সদস্য, বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, প্রো উপাচার্য এবং শিক্ষবিদরা, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং ইউজিসি’র ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও আমন্ত্রিত অতিথিরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে