প্রকাশ্য দ্বন্দ্বে দিশেহারা হবিগঞ্জ জাতীয় পার্টি

প্রকাশ্য দ্বন্দ্বে দিশেহারা হবিগঞ্জ জাতীয় পার্টি

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:০৩ ১০ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১৬:১২ ১০ জুলাই ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বেঁচে থাকতেই জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটিতে দু'পক্ষের দ্বন্দ্ব দেখা দেয়। দলটির একটি গ্রুপ এরশাদের পক্ষে অবস্থান নেয়, আরেকটি গ্রুপ অবস্থান নেয় রওশন এরশাদের পক্ষে। এসব বিষয়ে দলটির দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসে। পরে এ দ্বন্দ্ব ছড়িয়ে পড়ে জেলায়-জেলায়। বাদ যায়নি হবিগঞ্জেও। আর এসব দ্বন্দ্বে দিশেহারা হয়ে পড়েছে জেলার নেতাকর্মীরা।

জানা গেছে, জেলার এরশাদপন্থী হিসেবে পরিচিত আতিকুর রহমান আতিক আর রওশনপন্থী নেতা হিসেবে পরিচিত শংকর পাল। দুই বছর আগে এই দু'জনের নেতৃত্বে জেলা জাতীয় পার্টির আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। ফলে সভাপতির দায়িত্ব পান আতিক আর সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান শংকর। তাই কেন্দ্রের গ্রুপিংয়ের রেশ হবিগঞ্জ জাতীয় পার্টি থেকে এখনো কাটেনি। দুই বছর পার হলেও এখনো পূর্ণাঙ্গ কমিটি দিতে পারেনি আতিক-শংকর।

জেলার প্রবীণ বাসিন্দা হাবিবুর রহমান জানান, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে ভালোবেসে লাঙ্গলে ভোট দিতাম। কিন্তু সময়ের ব্যবধানে লাঙ্গল মার্কাটা আসলে কার এখন তা বোঝাই মুশকিল। তাই এখন আর লাঙ্গল নিয়ে এত চিন্তা-ভাবনা করি না। দলীয় নিষ্ক্রিয়তা, নেতাদের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে শুরু করে তৃণমূল পর্যন্ত গ্রুপিং ও দলীয় মনোভাব নিয়ে খোদ দলের নেতাদের মধ্যেই সন্দেহের দানা রয়েছে। তাই দলটি থেকে অনেক নেতাকর্মীরাই মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। 

হবিগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক শংকর পালের দাবি, দলের সেই সোনালি সময় ফিরিয়ে আনতে তিনি সব সময় মাঠে রয়েছেন এবং নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ রেখে দলীয় কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন তিনি।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/আরআর