Alexa পুলিশ সদস্য পরিচয় দেয়ায় খুন হন রবিন

পুলিশ সদস্য পরিচয় দেয়ায় খুন হন রবিন

সাভার (ঢাকা) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৫১ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

সাভারে হানিফ পরিবহনের শ্রমিক খুনের ঘটনায় সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের তিন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে আশুলিয়ার হেমায়েতপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

আটকরা হলেন- হেমায়েতপুর এলাকার আবদুল গিয়াসের ছেলে রবিউল ইসলাম, নুর আলমের ছেলে সজীব হোসেন ও কবির হোসেন রুবেল।

রোববার সকালে আশুলিয়া থানায় এক প্রেস ব্রিফিংয়ে আশুলিয়া থানার ইনস্পেক্টর ইন্টেলিজেন্টস মো. তছলিম উদ্দিন জানান, বুধবার দিবাগত রাত দেড়টায় আশুলিয়ার বাইপাইল আজিজ ফিলিং স্টেশন সংলগ্ন হানিফ কাউন্টার থেকে বাসায় যাওয়ার পথে রবিন নিখোঁজ হন।

বৃহস্পতিবার সকালে তার মরদেহ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) বিপরীতে ডেইরি ফার্মগেট সংলগ্ন এলাকায় পড়ে থাকতে দেখেন এলাকাবাসী।

রবিন ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানাধীন ডিগ্রিরটেক (মাদারটেক) নয়ারহাট এলাকার আবদুর রহমানের ছেলে। তিনি উত্তরবঙ্গে চলাচলরত হানিফ পরিবহনের বাইপাইল আজিজ ফিলিং স্টেশন সংলগ্ন কাউন্টারের মাস্টার ছিলেন। এ ঘটনায় আশুলিয়া থানায় একটি মামলা হয়েছে।

পরে রবিন হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য পুলিশ মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে হত্যাকারীদের শনাক্ত করে। সে সূত্র ধরে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতার ডাকাতরা জানান, তারা গাড়িতে ডাকাতির সময় হানিফ পরিবহনের কাউন্টার মাস্টার রবিন নিজেকে পুলিশ সদস্য পরিচয় দেয়। এতে তারা নিজেদের রক্ষা করার জন্য রবিনকে কুপিয়ে হত্যা করে মরদেহ ডেইরি ফার্মের পাশে ফেলে দেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম