Alexa পুলিশ বক্সের ভেতরে অন্ধকার কেন!

পুলিশ বক্সের ভেতরে অন্ধকার কেন!

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৫:৫৬ ২৪ মে ২০১৯   আপডেট: ১৯:৩২ ২৪ মে ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

চট্টগ্রাম নগরীর ট্রাফিক বক্সগুলো অস্বচ্ছ কাগজে মোড়ানো থাকার কারণে দিনে যেমন অন্ধকার থাকে। ঠিক তেমনই রাতেও বক্সগুলোর ভেতরে লাইট অফ থাকার কারণে থাকে অন্ধকার।

ফরহাদ নামে এক পথচারী বলেন, গাড়ির কাজগপত্র চেক করার নামে বক্সের ভেতরে অবৈধ লেনদেন করে ট্রাফিক পুলিশ। বাইরে থেকে কেউ যেন দেখতে না পায় সেজন্য বক্সের জানালা বন্ধ থাকে। বক্সের কাঁচগুলোর সামনের অংশে স্বচ্ছ ও ভেতরের লাইটগুলো জ্বালানো থাকলে অনৈতিক কিছু করার সুযোগ থাকতো না। ট্রাফিক পুলিশের অসাধু কর্মকর্তাদের দুর্নীতি বন্ধ করতে বক্সের কাঁচগুলো স্বচ্ছ রাখার দাবিও জানান তিনি।

ট্রাফিক পুলিশের বিশ্রাম ও আরামদায়ক পরিবেশে কাজ করার জন্য নগরীর বেশকিছু পয়েন্টে ট্রাফিক বক্স নির্মাণ করে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)। ব্যক্তি মালিকানাধীন কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের অনুদানে এইসব বক্স নির্মাণ করা হয়। তবে নগরীতে কতটি ট্রাফিক বক্স আছে সে হিসেব জানেন না সিএমপি ট্রাফিক বিভাগের উপ পুলিশ (ডিসি) কমিশনার হারুন-উর-রশিদ হাজারী(উত্তর) ও ফাতিহা ইয়াসমিন (বন্দর)।

সরজমিনে দেখা গেছে, নগরীর কাজীর দেওড়ি, জিইসি, দুই নাম্বার গেট, ওয়ারলেস রেললাইন মোড়সহ নগরীর প্রায় প্রতিটি ট্রাফিক বক্সের চারপাশ সিএমপি ও স্পন্সরকারী প্রতিষ্ঠানের লগোসহ ছাঁপানো স্টিকার সাটানো রয়েছে। এ সব স্টিকারের কারণে ট্রাফিক বক্সের জানালা বন্ধ রাখলে বাইরে থেকে কারো দেখার উপায় নেই ভেতরে কী হয়। একইভাবে প্রতিটি বক্স রাতের বেলা লাইট অফ করে অন্ধকার করে রাখা হয়। যেন বাইর থেকে ভেতরের দেখা না যায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নগর ট্রাফিকের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আমেনা বেগম বলেন, ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের বিশ্রাম করার জন্য অনুদানে বক্সগুলো নির্মাণ করা হয়েছে। বিশ্রাম ছাড়া বক্সের ভেতরে ট্রাফিক পুলিশ যানবাহনের কাগজপত্র চেক করেন না।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর

Best Electronics
Best Electronics