Alexa পুনরায় ভাত গরমে কিছু সাবধানতা 

পুনরায় ভাত গরমে কিছু সাবধানতা 

আঁখি আক্তার  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:০৯ ৫ মে ২০১৯   আপডেট: ১৫:৫০ ৫ মে ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ভাত অনেকটাই রয়ে গেলে পরের দিন আবার সেই ভাত গরম করে খাওয়া হয়ে থাকে। কিন্তু পরের দিন ওই ভাত আবার গরম করার ফলে তা শরীরে খারাপ প্রভাব ফেলে। চালের মধ্যে থাকে ব্যাসিলাস সেরিয়াস নামের এক ধরনের ব্যাকটেরিয়া। যখন চাল ফোটানো হয় তখন এই ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস হয়। চালের মধ্যে যে ব্যাকটেরিয়া থাকে তা ফুড পয়জনিংয়েরও কারণও হয়ে উঠতে পারে। কিন্তু রান্না করা ভাতের মধ্যে সাধারণত এই ব্যাকটেরিয়া বেঁচে থাকেনা। তবে রান্নার পরে সেই ভাত না খেয়ে যদি ঠান্ডা করে রাখা হয় তবে কিন্তু আবার ব্যাকটেরিয়া তার মধ্যে সংক্রমণ ঘটাতে পারে। যা থেকে বমি, ডায়েরিয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ভাতকে পুনর্বার গরম করলে একই সমস্যা দেখা দিতে পারে। যদি আপনি রান্না করা ভাত গরম করে খেতে চান, তবে সেক্ষেত্রে আপনাকে জানতে হবে ঠিক কীভাবে ভাতটিকে পুনর্বার গরম করলে তাতে ক্ষতিকরক প্রভাব থাকবেনা। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক পদ্ধতিটি-

১. প্রথমবার রান্না করার সময় ভাতকে উচ্চ তাপমাত্রায় ফোটাবেন। 
২. রান্না করা ভাত ঠান্ডা হয়ে যাওয়ার পরে এক ঘণ্টার বেশি ঘরের তাপমাত্রায় ফেলে রাখবেননা।
৩. ভাত ঠান্ডা হয়ে গেলে তা বাইরে না রেখে দ্রুত ফ্রিজে রেখে দিন। রান্না করা ভাত যদি ঠিকভাবে ফ্রিজে রাখা যায় তবে ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত তাকে পুনর্বার ব্যবহার করা যায়।
৪. পুনরায় গরম করার ক্ষেত্রে কিছু সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত। যেমন- মাইক্রোওয়েভে যদি গরম করতে চান তা হলে প্রতি এক কাপ ভাতে এক চামচ হিসাবে পানি দিন এবং পানি পুরোপুরি শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত গরম করুন। আর যদি গ্যাসে গরম করেন তবে পানি দিয়ে ফোটানোর সময় তার মধ্যে এক চিমটি মাখন বা সাদা তেল দিয়ে দিন। 

এই পদ্ধতিগুলো মেনে চললে আপনার রান্না করা ভাত কোনোভাবেই বিষাক্ত হবেনা বা পুনর্বার ব্যবহারের ক্ষেত্রে কারো অসুস্থ হয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকবেনা। তবে খেয়াল রাখবেন ভাতকে একবারের বেশি গরম করে খাওয়া উচিতনা। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ /জেএমএস

Best Electronics
Best Electronics