পীরগাছায় হাঁসের বাচ্চার মাথায় গজানো শিং নিয়ে তোলপাড়

পীরগাছায় হাঁসের বাচ্চার মাথায় গজানো শিং নিয়ে তোলপাড়

পীরগাছা (রংপুর) প্রতিনিধি  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:১৬ ১ জুন ২০২০   আপডেট: ১৬:২৯ ১ জুন ২০২০

হাঁসের বাচ্চার মাথায় গজানো শিং (লাল বৃত্তের ভেতরে)। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

হাঁসের বাচ্চার মাথায় গজানো শিং (লাল বৃত্তের ভেতরে)। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রংপুরের পীরগাছায় একটি হাঁসের বাচ্চার মাথায় শিং গজানোর ঘটনায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। উপজেলার কল্যাণী ইউপির বড়দরগা এলাকার আনিসুর রহমানের বাড়িতে অদ্ভূত ঘটনাটি ঘটে। এ খবর উপজেলায় ছড়িয়ে পড়লে হাঁসটির বাচ্চাকে এক নজর দেখতে দূরদূরান্ত থেকে ওই বাড়িতে ভিড় করছেন উৎসুক জনতা। 

আনিসুর রহমান জানান, প্রায় এক মাস আট দিন আগে বাড়িতে ১৪ টি হাঁসের বাচ্চা ফোটানো হয়। বাচ্চাগুলো ভালোভাবেই বেড়ে উঠছিল। গত বৃহস্পতিবার একটি হাঁসের বাচ্চার মাথায় সমস্যা দেখতে পান আনিসুর। বাচ্চাটির মাথায় শক্ত কিছু একটা উঠতে দেখেন। এতে বড়দরগা বাজারের সবাইকে হাঁসের বাচ্চাটি দেখান তিনি।  

স্থানীয়রা জানান, হাঁসের মাথায় থাকা শক্ত অংশটি ধরে শিং মনে হয়েছে। শক্ত অংশটি অন্যান্য প্রাণীর শিং-এর সঙ্গে হুবহু মিল রয়েছে। বেড়ে যাওয়া শক্ত অংশ বাঁকানোও সম্ভব হচ্ছে না। অন্যান্য প্রাণীর শিং-এর মতোই মনে হচ্ছে। 

আনিসুর রহমান আরো জানান, ছোটবেলা থেকে হাঁস-মুরগি পালন করছেন তিনি। কখনো হাঁসের মাথায় শিং গজাতে দেখেননি। এটা তার কাছে অবিশ্বাস্য মনে হয়েছে। হাঁসের বাচ্চাটি এখনো সম্পূর্ণ সুস্থ। প্রতিদিনই হাঁসের বাচ্চাটিকে এক নজর দেখতে তার বাড়িতে ভিড় করছে শতশত মানুষ। তাই হাঁসটির বাচ্চাকে আলাদা টুকরিতে রাখা হয়েছে। 

মাথায় শিং গজানো হাঁসের বাচ্চাকে টুকরিতে আলাদা করে রাখা হয়েছে

হাঁসের বাচ্চা দেখতে আসা নব্দীগঞ্জ বাজারের মোখলেছুর রহমান বলেন, হাঁসের মাথায় শিং আগে কখনো দেখিনি। হাঁসের মাথায় শিং গজানোর খবর পেয়ে সরাসরি দেখতে আসলাম। নিজের হাতে ধরে দেখেছি। এটি শিং-এর মতোই মনে হয়েছে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নুর আলম বলেন, হাঁসের বাচ্চার মাথায় শিং গজানোর খবর ছড়ানোয় আনিসুরের বাড়িতে ভিড় করছেন উৎসুক মানুষেরা। সবাইকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে হাঁসটিকে দেখতে যাওয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ বিভাগের ভেটেরিনারি সার্জন ফরহাদ নোমান শিমুল জানান, এটা জীনগত সমস্যা (কনজেনিটাল এনোমালিস)। শরীরে জীনগত সমস্যার কারণে শিং উঠতে পারে। শরীরের সব কিছুর জন্য কোনো না কোনো জীন দায়ী। হাঁসের বাচ্চাটির ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ