‘পিলখানা হত্যাকাণ্ডে বিএনপির সংশ্লিষ্টতা জাতির সামনে প্রমাণিত’

‘পিলখানা হত্যাকাণ্ডে বিএনপির সংশ্লিষ্টতা জাতির সামনে প্রমাণিত’

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:০৮ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৬:৩৯ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পিলখানা হত্যাকণ্ড নিয়ে যতই ঘাটবেন ততই নিজেরা, নিজেদের (বিএনপি) জালে পেঁচাবেন, ধরা পড়বেন। এই হত্যাকণ্ডে আপনাদের যে সংশ্লিষ্টতা আছে তা জাতির সামনে ভালোভাবে প্রমাণিত বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। 

বুধবার রাজধানীর শাহবাগ জাতীয় জাদুঘর শেখ রাসেল জাতীয় শিশু -কিশোর পরিষদের এর ৩২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী  উপলক্ষে শিশু-কিশোরদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ, ল্যাপটপ বিতরণ ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। 

বিএনপির পক্ষে থেকে বলা হয়েছে তারা ক্ষমতায় গেলে পিলখানা হত্যাকণ্ডের নতুন করে বিচার করবে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, পিলখানার হত্যাকণ্ড নিয়ে বিএনপি এখনো মিথ্যাচার করছে। আমি (ওবায়দুল কাদের)  বলতে চাই একসঙ্গে এত লোকের বিচার, এত দ্রুত সময়ে বিচার পৃথিবীর ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা। পিলখানা হত্যাকন্ডের বিচার সারা পৃথিবীর জন্য একটা উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। 

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ২৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ৭ টায় বেগম জিয়া কোথায় গিয়েছিলন? যিনি দুপুর ১২ টার আগে ঘুম থেকে ওঠেন না। সকাল ৭টায় ঘুম থেকে ওঠে কোথায় পলায়ন করেছিলেন বেগম জিয়া, দুই দিন ধরে তার কোনো খোঁজ খবর ছিলো না।  সেই রহস্য নতুন বিচার করতে গেলে বেরিয়ে আসবে। কেঁচো খুঁজতে গেলে সাপ বেরিয়ে আসবে। সকালে ২ ঘন্টা ব্যাপি ১১ বার তারেক রহমানের সঙ্গে কি কথা বলেছিলেন। সেই রহস্য উদঘাটন করা হবে। কি কথা হয়েছিল মা-ছেলের মধ্যে, সেটা জাতি জানতে পারবে। 

তিনি বলেন,  শেখ হাসিনা ছাড়া এদেশের কোনো প্রধানমন্ত্রী নিজের দলের অপকর্মের বিচার করেননি। একটাও উদাহরণ দেখাতে পারবেন না। আওয়ামী লীগ ছাড়া, শেখ হাসিনা ছাড়া এদেশের অন্য কোনো দল নিজের নেতাকর্মীদের বিচার করেনি। নিজেদের সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজদের কারোও বিচার হয়নি। এমনকি পাপিয়ার মতো অপরাধীদেরও কোনো বিচার হয়নি। শেখ হাসিনা এদেশে কোনো অপরাধীকে প্রশ্রয় দেবেন না। শেখ হাসিনার নির্দেশেই পাপিয়া গ্রফতার হয়েছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপিতে পাপিয়ার মতো হাজার হাজার নেতাকর্মী ছিল ও আছে, কারোও বিচার করা হয়নি।  

শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ একটি সুসংগঠিত সংগঠন উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ নিরবে বিপ্লব ঘটিয়ে যাচ্ছে। ৩২ বছরে এ সংগঠনের কোনো প্রকার অভিযোগ পাইনি। অনেক কষ্ট করে এই সংগঠন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এই সংগঠন থেকে  অনেকের মূলবোধের সৃষ্টি হয়েছে। 

শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের চেয়ারম্যান রকিবুর রহমানের সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদের মহাসচিব মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীসহ অন্যরা।

ডেইলি বাংলাদেশ/জাআ/এসএএম/এসআই