পিরোজপুরে কর্মীদের আস্থা হারাচ্ছে বিএনপি

পিরোজপুরে কর্মীদের আস্থা হারাচ্ছে বিএনপি

পিরোজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৩৮ ৫ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১৬:২৮ ৫ জুলাই ২০২০

সংগৃহীত

সংগৃহীত

ঝিমিয়ে পড়েছে পিরোজপুর বিএনপি। বেশ কিছুদিন ধরে কর্মসূচি ও শক্ত নেতৃত্ব না থাকায় নেতাকর্মীদের আস্থা হারাচ্ছে দলটি। দুঃসময়ে নেতাকর্মীদের পাশে না থাকা, সাংগঠনিক স্থবিরতা, দলীয় কোন্দল, মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি ইত্যাদি  বিএনপির জন্য সৃষ্টি করেছে  এক গ্যারাকল। ফলে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে মানুষ ও দলের নেতাকর্মীদের মাঝে।

বিএনপির একাধিক পদবঞ্চিত কর্মী বলেন, ২০১১ সালের ৫ জুন সর্বশেষ পিরোজপুর জেলা বিএনপির কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটির হাতেগোনা ৬/৭ জন জেলা সদরে অবস্থান করে। জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত সপরিবারে রাজধানীতে অবস্থান করছেন। সভাপতি গাজী নুরুজ্জামান বাবুল বার্ধক্য জনিত কারণে বেশ কিছুদিন অসুস্থ হয়ে ঢাকায় অবস্থান করছেন। সহ-সভাপতি মহিউদ্দিন মল্লিক নাসির, এলিজা জামান পরিবার পরিজন নিয়ে ঢাকায় আছেন। সিনিয়র সহ-সভাপতি নজরুল খান থাকেন নাজিরপুর উপজেলায়। এমন অবস্থার মধ্যে পিরোজপুরের বিএনপির দৈন্যদশা চলছে। তার উপর করোনা পরিস্থিতিতে আরো বিরূপ প্রভাব পড়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে জেলা সদরের স্থানীয় একজন বলেন, পিরোজপুর আগে থেকেই আওয়ামী লীগের ঘাঁটি। জেলায় এখন আওয়ামী লীগের শক্ত সাংগঠনিক অবস্থান রয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে বিএনপির কোনো নেতার দেখাই পাওয়া যায় না।

জেলার অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কাজী মুজিবুর রহমান বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে বিএনপির পক্ষ থেকে কোথাও ত্রাণ বিতরণের দৃশ্য আমার চোখে পড়েনি।

এদিকে আইনজীবী সাইদুর রহমান টিটো বলেন, পিরোজপুরে বিএনপির সাংগঠনিক কার্যক্রম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সীমাবদ্ধ। তারা সাধারণ মানুষকে এই মহামারিতে কিছুই দেয়নি। সাধারণ মানুষ এই কারণে বিএনপি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে।

জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদুল ইসলাম কিসমত বলেন, পিরোজপুরে করোনা পরিস্থিতির কারণে সাংগঠনিক কার্যক্রম এখন অনেকটা কম।ব

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আলমগীর হোসেন বলেন, বড় দল হিসেবে কমিটি ও নেতৃত্ব নিয়ে একটু দ্বন্দ্ব থাকতেই পারে। তবে সাধ্যানুযায়ী মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি আমরা।

জেলা বিএনপির সভাপতি গাজী নুরুজ্জামান বাবুল বলেন, পটুয়াখালী বিএনপিতে কোনো গ্রুপিং বা কোন্দল নেই। সেক্রেটারি করোনা পরিস্থিতিতে ঢাকায় আছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এস/এসআই/এসআর