Alexa পারিশ্রমিক ছাড়াই ১ হাজার ২৫০ কোটি ঘণ্টা কাজ করেন নারীরা!

পারিশ্রমিক ছাড়াই ১ হাজার ২৫০ কোটি ঘণ্টা কাজ করেন নারীরা!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২১:৩৭ ২১ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ২১:৫৪ ২১ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বের বেশিরভাগ অর্থ-সম্পদের মালিক মাত্র দুই হাজার মানুষ। বাকি সাড়ে চারশো কোটি সাধারণ মানুষের তুলনায় তাদের সম্পদের পরিমাণ অনেক বেশি। কিন্তু বিশ্ব অর্থনীতিতে প্রযুক্তির তুলনায় বেতনহীন আর কম বেতনে শ্রম দেয়া নারীদের ভূমিকা এর থেকেও তিনগুণ বেশি। সম্প্রতি এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা অক্সফাম।

সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে শুরু হতে যাওয়া বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের বার্ষিক সম্মেলন সামনে রেখে এ প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়।

'টাইম টু কেয়ার' শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, বর্তমানে সারা বিশ্বের নারীরা সব মিলিয়ে ১ হাজার ২৫০ কোটি ঘণ্টা কাজ করে বিনা পারিশ্রমিকে। তাদের এই কাজ বিশ্ব অর্থনীতিতে বছরে প্রায় ১১ ট্রিলিয়ন ডলার যোগ করে। অথচ বিশ্বে দিনদিনই বাড়ছে ধনী গরীব বৈষম্য।

এ প্রসঙ্গে অক্সফাম ইন্ডিয়ার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অমিতাভ বিহার বলেন, 'অর্থনীতিতে যাদের অবদানের শেষ নেই তারাই বিনা বেতনে কাজ করেন। আমাদের উচিৎ তাদের সম্মান দেয়া। সারাবিশ্বে অন্তত ৩০টি দেশে কোনো না কোনো বিক্ষোভ চলছে। সবার একটাই কথা তারা কোনোভাবেই অসমতা মেনে নিতে পারছে না।'

ওই প্রতিবেদন আরও উল্লেখ করা হয়েছে, বিশ্বের মাত্র ২২ জন ধনীর যে পরিমাণ অর্থ আছে, তা পুরো আফ্রিকার সব নারীর অর্থের তুলনায় বেশি। সব মিলিয়ে মাত্র ২ হাজার ধনীর মোট অর্থের পরিমাণ সারা বিশ্বের ৬২ শতাংশ মানুষের সমান। ধনী দরিদ্র বৈষম্য বাড়াচ্ছে দ্বন্দ্ব সংঘাত।

অমিতাভ বিহার বলেন, 'দেখুন দাভোসের সম্মেলনে কেউ কেউ ব্যক্তিগত বিমানে চড়ে আসবেন। আবার অন্যদিকে ভারতের প্রত্যন্ত গ্রামের নারীরা সংসার সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন। বিলিয়নিয়ার বিস্ফোরণ বন্ধ এখন সময়ের দাবি।'

অর্থনীতি বিশ্লেষকরা বলছেন, বিলিয়নিয়ার পৃথিবীতে না থাকলেই কমবে এই অসমতা।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী