90903 পাবজি কেন এত জনপ্রিয়? 
Best Electronics

পাবজি কেন এত জনপ্রিয়? 

সিফাত সোহা ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২৩:৫৯ ১৪ মার্চ ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

আপনাদের যদি একটি প্রশ্ন করি যে বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় গেম'র নাম বলুন তাহলে আপনাদের মধ্যে অনেকেই নিঃসন্দেহে বলে দেবেন পাবজি। হ্যাঁ! ঠিকই ধরেছেন বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় গেমস হচ্ছে পাবজি। যেটা প্রতিদিন কোটি কোটি মানুষ খেলে। আপনাদের আজ এই গেমটির সম্পর্কে কিছু অজানা তথ্য জানাবো যা আপনারা হয়তো কখনই  জানতেন না। পাবজি হচ্ছে একটি অনলাইন মাল্টিপ্লেয়ার গেম। যেটা দক্ষিণ কোরিয়ার ব্লু হোয়েল ভিডিও গেমস কোম্পানি বানিয়েছেন। যার পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন ব্রেন্ডান গ্রিন। 

গেমটি কিভাবে খেলে সংক্ষেপে বলছি। খেলাটিতে ১০০ জন প্লেয়ার একটি দ্বীপে প্যারাসুট দিয়ে নামে এবং বিভিন্ন অস্ত্র সরঞ্জাম দিয়ে নিজেদের মধ্যে যুদ্ধ করে শেষ পর্যন্ত টিকে থাকতে হয়। ম্যাপের বিভিন্ন স্থান হতে অস্ত্র সরঞ্জাম সংগ্রহ করতে হয়। ম্যাপের সেভ জোনের আকার সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ছোট হতে থাকে। কারণ খেলোয়ারদের একে অন্যকে সাক্ষাত যুদ্ধ করানোর জন্য। নিজেদের মধ্যে যুদ্ধ করে লাস্ট ম্যান স্ট্যানিং হিসেবে যে থাকবেন সে-ই হবেন বিজয়ী। আশা করি বুঝে গেছেন। 

এবার জেনে নেই এই গেমের পরিচালকের সম্পর্কে। ব্রেন্ডান গ্রিন যাকে প্লেয়ার আননোন নামে বলা হয়। আয়ারল্যান্ডে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তিনি একজন ফটোগ্রাফারও ছিলেন। এরপর আয়ারল্যান্ড ছেড়ে ব্রাজিলে চলে যান এবং ওখানে বিয়ে করেন। কিন্তু দুই বছরের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়। আর তার ফল স্বরূপ তিনি আবার আয়ারল্যান্ডে ফিরে আসেন এবং অবসর সময় তিনি প্রচুর গেম খেলতেন। তার পছন্দের গেমগুলোই তিনি খেলতেন কিন্তু তার মনের মধ্যে কিছু পরিকল্পনা ছিল। তিনি এক সময় দক্ষিণ কোরিয়া চলে গেলেন এবং সেখানে চং হং কিং নামের একজন বন্ধু পেলেন। দুইজন মিলেই ব্যাটেল রয়েল নামক একটি গেম থেকে অনুপ্রেরণা পেলেন। অবশেষে পাবজি গেমটি বানাতে সক্ষম হলেন। 

পাবজি গেমটি কবে প্রকাশিত হয়েছে তা হয়তো অনেকেই জানি না। ২৩ মার্চ ২০১৭ সালে গেমটি মাইক্রোসফট উইন্ডোজের জন্য রিলিজ করা হয়। ২০ ডিসেম্বর ২০১৭ সালে গেমটি সম্পূর্ণভাবে রিলিজ করা হয়। এন্ড্রয়েড ও আইওএস ভার্সনে রিলিজ হয় ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। 

এবার আসা যাক পাবজি গেম সম্পর্কে। যে গেম প্রথমে প্রকাশিত হয় না বা কবে প্রকাশ হতে পারে এটার একটা সম্ভাবনা তৈরি হয়, সেক্ষেত্রে ঐ গেমের প্রতি যারা আগ্রহী তারা আগেই অর্ডার করে রাখে। পাবজি ২০১৭ সালের মার্চে প্রকাশিত হয়। তখন যারা আগে অর্ডার করেছিল তাদের ভার্চুয়াল বেন্ডানা দেয়া হয়েছিল। এই বেন্ডানার কাজ হলো আপনি একটা চরিত্রকে পোশাক পরিয়ে একটি আলাদা দেশও প্রদান করতে পারবেন। প্রথমে এই ভার্চুয়াল বেন্ডানা ১০০০ ডলারে বিক্রি করা হয় যা বিদেশি খেলোয়াড়রা এটা টাকা দিয়ে কিনে নিয়েছেন। ভাবতে পারেন যে, পাবজি তাহলে কতটা জনপ্রিয়তা লাভ করে ফেলেছে। আপনি কি জানেন একটি নির্দিষ্ট সময়ে প্রায় তের লাখ বিয়াল্লিশ হাজার আটশ সাতান্ন জন অনলাইন খেলে এই গেমটির বিশ্ব রেকর্ড করে। এই রেকর্ড আগে দাটা টু এর দখলে ছিল সেটা পাবজি ভেঙে দিয়েছে কিছুদিনের মধ্যেই। 

এই গেমে আপনি অনেক ভটস দেখতে পারবেন। আপনি যদি সেই গেমটি খেলে থাকেন তাহলে জানবেন একটি গেমসে ১০০ জন থাকে ঐ ১০০ জনের মধ্যে কিন্তু সবাই আপনার মত খুনি নয় বা আপ্নার মত কন্ট্রোল করছে না। আপনার সঙ্গে প্রায় অনেকগুলো ভটস থাকে এর ফলে ওই গেমস এর লেভেলটা কিছুটা সহজ হয়ে যায়। আর যদি ঐ ১০০ জনের মধ্যে ১০০ জনই যদি আপনার মত গেমস কন্ট্রোল করতো তাহলে কিন্ত গেমটি অনেক কঠিন হয়ে যেত। 

এবার জেনে নেই এই গেমটির নাম কেন পাবজি দেয়া হলো। আসলে এই গেমটির পুরো নাম হচ্ছে প্লেয়ার আননোন ব্যাটেল গ্রাউন্ড। এই গেমটিতে বিশ্বব্যাপি খেলোয়াড়রা নিজের নাম প্রকাশ না করে খেলতে পারে অর্থাৎ নিজের নামের বদলে গেম প্লেয়ার অওান বা বিড গেমার ইত্যাদি রাখতে পারে। আর সেই সূত্র ধরেই গেমের নামকরণ করা হয়েছে পাবজি। 

উইনার উইনার চিকেন ডিনার এর রহস্য কি তাকি আপনারা জানেন? আপনি যদি  একটা লেভেল জেতেন তাহলে আপনাকে দেখাবে উইনার উইনার চিকেন ডিনার। আসলে এই শব্দটি কয়েক শতাব্দী পুরনো। কয়েক শতাব্দী আগের কিছু মানুষ, বলতে পারেন খুব গরিব মানুষ যাদের একটা চিকেন অর্থাৎ একটি মুরগির মাংস কেনার ক্ষমতা ছিল না। তারা সময় কাটানোর নেশা, সখ বা বলতে পারেন টাকা উপার্জনের লোভে জুয়া খেলতো এবং ঐ জুয়া খেলায় যখন তারা জিতে যেত তখন তারা চিকেন কেনার জন্য টাকা খরচ করতেন তখনকার সময় থেকে চালু হয় এই শব্দটি। তখনকার সময় চিকেন কেনা মানেই অনেক বড় কিছু ছিল। আর এরপর থেকেই উইনার উইনার চিকেন ডিনার শব্দটি চালু হয়। এই শব্দটিকে পাবজি গেমের ডিজাইনার ব্যবহার করেছেন। 

২০১৭ সালের ২৩ মার্চ সিম নামক একটি প্লাটফর্মে যখন গেমটি প্রকাশ হয় তখন এক মাসের মধ্যেই দুই মিলিয়ন বিক্রি হয় এবং একটি একক প্লাটফর্মের মাধ্যমে সবচেয়ে বেশি বিক্রিত গেমে পরিনিত হয়। ভাবতে পারেন কেমন চাহিদা গেমটির। এই গেম এর জন্য ব্লু হয়েল স্টুডিও আলাদা করে কোনো প্রচারণা করেনি। লোকমুখে যতটা প্রচার হয়েছে তার জন্য এত জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। আসলে যার বাস্তব গুণ ও মান ভালো তার প্রচার-প্রচারণ প্রয়োজন হয় না। মানুষ এমনিতেই তাকে আপন করে নেয়। সে জন্য ২০১৮ সালের তথ্য অনুসারে মাসে গড়ে প্রায় ২২৭ মিলিয়ন এবং দৈনিক প্রায় ৪৭ মিলিয়ন লোক এই গেমটি খেলে থাকে।  

২০১৮ সালের ২০ জুন পর্যন্ত দেশব্যাপী প্রায় ৫০ মিলিয়ন গেম বিক্রি হয়েছে। তা আবার পুবজি গেম মোবাইল ছাড়া। পাবজি গেম মোবাইলে খেলোয়াড়দের সংখ্যা আনুনামিক ১০ মিলিয়ন। এই গেমে বিভিন্ন ধরনের ম্যাপ আছে। পাবজি   খেলোয়াড়দের জন্য রয়েছে ইরেঞ্জার নামের একটি ম্যাপ। এই ম্যাপটি বাস্তবে রয়েছে রাশিয়াতে। আর এর একটি ইতিহাসও রয়েছে। ইরেঞ্জার নামের ঐ দ্বিপটি সোভিয়েত আক্রমণ করে দখল করে নিয়েছিল সেনা ঘাটি বানানোর জন্য। কিন্তু ওই দ্বীপের স্থানীয় লোকেরা সেটি মেনে নিতে পারেননি। ফলে ঐ স্থানের অধিবাসী ও সেনাদের মধ্যে যুদ্ধ হয় এবং সেনারা দ্বীপটি দখল করে নেয়। এছাড়াও আরো ম্যাপ রয়েছে যার মধ্যে ওনেক দেশেরই অনেক ইতিহাসও বহন করে। তাহলে আশা করি আপনারা সবাই বুঝতে পেরেছেন কেন এই গেম এত জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ

Best Electronics