পাঠাওয়ের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ফাহিম হত্যার লোমহর্ষক বর্ণনা দিল পুলিশ

পাঠাওয়ের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ফাহিম হত্যার লোমহর্ষক বর্ণনা দিল পুলিশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৩৮ ১৫ জুলাই ২০২০   আপডেট: ১৯:১১ ১৫ জুলাই ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

নিউইয়র্কের নিজ অ্যাপার্টমেন্ট থেকে পাঠাওয়ের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও উদ্যোক্তা ফাহিম সালেহের ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন মরদেহ উদ্ধার করেছে নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্ট। তবে এখন পর্যন্ত এই হত্যাকাণ্ডের কোনো উদ্দেশ্য সম্পর্কে ধারণা করতে না পারলেও ঘটনার লোমহর্ষক বর্ণনা দিয়েছে পুলিশ।

তরুণ এই উদ্যোক্তার হত্যা নিয়ে নিউইয়র্ক পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাস্থলেই শরীরের বিচ্ছিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ পাওয়া গেছে ফাহিমের। এর মধ্যে হাত-পা বিহীন বিচ্ছিন্ন মাথা, হাত এবং দুই পা পাওয়া গেছে। পাশে একটি ব্যাগও ছিল। যদিও ব্যাগটি এখনো খুলে দেখা হয়নি।

পুলিশ আরো জানিয়েছে, গোয়েন্দা সংস্থা ঘটনাস্থলের ফিঙ্গারপ্রিন্ট এবং মরদেহের ফরেনসিক টেস্ট রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করছে। এছাড়াও লিফটের একটি সার্ভিলেন্স ক্যামেরায় ফাহিমের গতিবিধির কিছু ফুটেজ পাওয়া গেছে। তাতে সর্বশেষ সোমবার তাকে লিফটের ভেতর দেখা গেছে। স্যুট, গ্লভস, হ্যাট এবং মাস্ক পরিহিত একটি লোককে ওই সময় তাকে অনুসরণ করতে দেখা যাচ্ছে।

পুলিশের ধারণা, লিফট থেকে বের হওয়ার পরপরই তাকে গুলি করা হয়েছে অথবা ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়া হয়েছে। তাছাড়া অপরাধীর কাছে একটি স্যুটকেসও ছিল। খুনি খুবই পেশাদার বলেই ধারণা করছে পুলিশ।

জানা গেছে, ফাহিম যে ভবনে থাকতেন সেটি খুবই সম্প্রতি নির্মিত একটি অ্যাপার্টমেন্ট। প্রায় বিশ কোটি টাকা দিয়ে গত বছর নিউইয়র্কে বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্টটি কিনেছিলেন ৩৩ বছর বয়সী ফাহিম। পাঠাওয়ের মতো তিনি নাইজেরিয়ায় আরো একটি মোটর বাইক শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান চালু করেছিলেন। সে প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার পদে ছিলেন ফাহিম সালেহ।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ