Alexa পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়া হলো ‘বেন্ট’ পিরামিড

পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়া হলো ‘বেন্ট’ পিরামিড

ভ্রমণ ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১১:৪৩ ১৫ জুলাই ২০১৯  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

পর্যটকদের জন্য খুলে দেয়া হলো প্রায় ৪,৬০০ বছরের পুরোনো ‘বেন্ট’ পিরামিড। এটি ফারাও স্নেফেরুর স্মৃতিতে তৈরি করা হয়েছিল। এর মাধ্যমে দেশটির পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে বড়সড় পদক্ষেপ নেয়া হলো। খবর এই সময়।

দক্ষিণ কায়রোর প্রায় ১০১ মিটার উঁচু এই স্থাপত্য পিরামিড স্থাপত্য বিবর্তনের গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষী। ১৯৫৬ সালে খননের পর বেন্ট পিরামিড পর্যটকদের জন্য খোলাই ছিল। কিন্তু মেরামতির প্রয়োজনে ১৯৬৫ সালে সেটি বন্ধ করা হয়। এত বছর পর ফের ৭৯ মিটার লম্বা, সংকীর্ণ সুড়ঙ্গ পেরিয়ে পিরামিডের ভেতরে ঢোকার সুযোগ পাবেন পর্যটকরা। এর পাশেই রেয়েছে ১৮ মিটার উঁচু আর একটি পিরামিড। ধারণা করা হয়, সেটি স্নেফেরুর স্ত্রী হেতেফেরেসের স্মৃতিতে তৈরি। পর্যটকদের জন্য সেটিও খুলে দেয়া হয়েছে।

৭৯ মিটার সুড়ঙ্গ দিয়ে ভেতরে ঢুকতে পারবেন পর্যটকরা

নরম পলি দিয়ে ৫৪ ডিগ্রি কোণে খাড়াভাবে তৈরি হয়েছিল ‘বেন্ট’ পিরামিড। এ কারণে এর দীর্ঘস্থায়িত্ব ও ধস নিয়ে আশঙ্কা দেখা দিয়েছিল। পরবর্তী সময়ে ১৪৭ ফুট ওপরের অংশ ৪৩ ডিগ্রি চ্যাপ্টা রেখে তা সমন্বয় করা হয়। কৌণিক আকৃতিটি উত্তর দিকে রেড পিরামিডের সোজা দিকগুলোর বিপরীতে। ভ্রমণপ্রেমীরা এখন থেকে বেন্ট পিরামিডের উত্তরে একটি প্রবেশপথের মাধ্যমে ৭৯ মিটার সুড়ঙ্গ দিয়ে ভেতরে ঢুকতে পারবেন।

পর্যটকদের জন্য এই পিরামিড খুলে দেয়ার অন্যতম কারণ, পর্যটনে উৎসাহ দেয়া। কায়রোর প্রায় ২৮ কিলোমিটার দক্ষিণের দাহশুরে পর্যটকের পা প্রায় পড়ে না বললেই চলে। অথচ এখানেও বিস্ময় সৃষ্টিকারী বেশ কিছু স্থাপত্য রয়েছে। সেগুলোকে তুলে ধরতেই এই পদক্ষেপ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে

Best Electronics
Best Electronics