Alexa পর্দা নামছে ‘বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক উৎসব’র

পর্দা নামছে ‘বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক উৎসব’র

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৫৮ ২৩ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত ‘বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক উৎসব ২০২০’-এর পর্দা নামছে বৃহস্পতিবার। এই উৎসবের সমাপনী দিনে বিকেল ৪টা থেকে নন্দনমঞ্চে পরিবেশিত হবে বরগুনা, মুন্সিগঞ্জ, খাগড়াছড়ি ও চট্টগ্রাম জেলার সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। এছাড়া রাত ৮ টায় একাডেমি প্রাঙ্গণে দর্শনির বিনিময়ে ঐতিহ্যবাহী লোকনাট্য সুনামগঞ্জের ‘ধামাইল’ অনুষ্ঠিত হবে।

জাতীয় সংস্কৃতি ও কৃষ্টির উন্নয়ন, সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণ ও প্রসারের মাধ্যমে শিল্প-সংস্কৃতি ঋদ্ধ সৃজনশীল মানবিক বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি বহুমূখী সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করে চলেছে। তারই ধারাবাহিকতায় দ্বিতীয়বারের মতো ২১ দিনব্যাপী এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। 

এই উৎসবে প্রতিদিনই থাকছে জেলা ও উপজেলার সঙ্গে জাতীয় পর্যায়ের শিল্পী ও সংগঠনের পরিবেশনা। এছাড়াও একাডেমি প্রাঙ্গণে প্রতিদিন রাত ৮টা থেকে একটি লোকনাট্য পরিবেশিত হচ্ছে। বুধবার উৎসবের ২০তম দিনে একাডেমি প্রাঙ্গণে বিকেলে অনুষ্ঠানের শুরুতেই পরিবেশিত হয় জাতীয় সঙ্গীত। এদিন বিভিন্ন পরিবেশনায় ছিলেন নারায়নগঞ্জ, গাইবান্ধা, ঠাকুরগাঁও ও টাঙ্গাইল জেলার শিল্পীরা। 

জেলার পরিবেশনার আগে ছিল বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ঢাকার পরিবেশনায় অ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনী, শিল্পকলা একাডেমির কার্যক্রমের উপরে প্রমো প্রদর্শন। একক সংগীত পরিবেশন করে শিল্পী সুফি। অনিক বোসের পরিচালনায় সমবেত নৃত্য পরিবেশন করে নৃত্য সংগঠন স্পন্দন। আহকামউল্লাহ’র পরিচালনায় বৃন্দ আবৃত্তি পরিবেশন করে ‘স্বরশ্রুতি’ সংগঠন।

এ দিন বিশেষ আকর্ষন ছিলো টাংগাইল জেলার সংযাত্রা। একাডেমি প্রাঙ্গণে রাত ৮টায় দর্শনীর বিনিময়ে মঞ্চস্থ হয় মহাদেবের সংযাত্রা লোকনাট্য ‘বস্তা, উকিল ও পিঠা’।

দেশের ৬৪টি জেলা, ৬৪টি উপজেলা এবং জাতীয় পর্যায়ের পাঁচ হাজারের অধিক শিল্পী ও শতাধিক সংগঠনের অংশ নেন ২১ দিনব্যাপী একাডেমির নন্দনমঞ্চে এই শিল্পযজ্ঞে। ঐহিত্যবাহী লোকজ খেলা, লোকনাট্য ও সারাদেশের শিল্পীদের বিভিন্ন নান্দনিক পরিবেশনার মাধ্যমে সাজানো ছিলো এই উৎসব।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনএ