‘পরিবারের জন্য ইংল্যান্ড যাচ্ছেন না ব্রাভো-হেটমায়ার-পল’

‘পরিবারের জন্য ইংল্যান্ড যাচ্ছেন না ব্রাভো-হেটমায়ার-পল’

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৩১ ৫ জুন ২০২০   আপডেট: ১৯:৩৯ ৫ জুন ২০২০

পরিবারের জন্য ইংল্যান্ড যাচ্ছেন না ব্রাভো-হেটমায়ার-পল

পরিবারের জন্য ইংল্যান্ড যাচ্ছেন না ব্রাভো-হেটমায়ার-পল

তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে আগামী ৮ জুন ইংল্যান্ড যাচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল। এরইমধ্যে টেস্ট সিরিজের দলও ঘোষনা করেছে ক্যারিবীয়রা। তবে দলের সঙ্গে যাচ্ছেন না ড্যারেন ব্রাভো, শিমরন হেটমায়ার ও কিমো পল। করোনাভাইরাসের কারণে দল ঘোষনার আগেই ইংল্যান্ড সফরে না যাবার ইচ্ছা বোর্ডকে জানান তারা।  

বোর্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকলেও ইংল্যান্ড সফরে এই তিন ক্রিকেটার না যাওয়ায়, কোন ক্ষোভ নেই বোর্ডের। কারণ পরিবারের নিরাপত্তার কথা ভেবেই  ইংল্যান্ড সফরে না যাবার সিদ্ধান্ত নেন তারা, এমনটা জানিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী জনি গ্রেভ।

তিনি বলেন, ‘পরিবারের নিরাপত্তার কথা ভেবেই ব্রাভো-হেটমায়ার-পল ইংল্যান্ড সফরে যাননি। তাদের সিদ্ধান্তকে মেনে নেয়া হয়েছে ও সম্মানও করা হয়েছে। কারণ বর্তমান পরিস্থিতিতে কাউকে কোন বিষয় নিয়ে জোড় করা যায় না’।

ইংল্যান্ড সফর নিশ্চিত হবার পরই দল সাজানো নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড। এরপর সকল খেলোয়াড়কে বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়, সফর নিয়ে কারো উপর জোড় করা হবে না। কারণ সফর নিয়ে সংশয় থাকলে তা পারফরম্যান্সে প্রভাব ফেলতে পারে।

তিনজনের সিদ্ধান্তের কারণও আলাদা ব্যাখ্যা করেছেন গ্রেভ। বোর্ডকে কি বলেছেন তারা, তার কিছুটা প্রকাশ করেন গ্রেভ, ‘পল তার বিশাল পরিবারের একমাত্র উপর্জনকারী। তার কিছু হলে পরিবার কীভাবে চলবে, এটি নিয়ে সে সত্যিই দুর্ভাবনায় ছিল। তার ব্যাপারটি জানিয়ে আমাদের কাছে লিখেছে, ভারাক্রান্ত হৃদয় নিয়েই এই সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে, ইংল্যান্ডে যেতে স্বস্তিবোধ করছে না। পরিবারের সঙ্গে আলোচনার পর তার মনে হয়েছে, সফরে যাওয়া ঠিক হবে না’।

গ্রেভ আরো জানান, ‘হেটমায়ার তার পরিবারকে রেখে ইংল্যান্ড সফরে যাওয়া নিরাপদ মনে করেনি’।

দলের সেরা তিন খেলোয়াড় না থাকলেও, ইংল্যান্ড সফরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ভালো করবে বলে মনে করেন গ্রেভ, ‘আমি মনে করি আমাদের এই দলটি প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে তুলতে সক্ষম হবে। দলের অর্ধেকেরও বেশি খেলোয়াড় গত বছর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট জয়ের দলে ছিল। এই দলের খেলোয়াড়রা গত সফরের অভিজ্ঞতা ও আত্মবিশ্বাস কাজে লাগাবে ও সফলও হবে। এছাড়া নতুনদের অনুপ্রেরণাও দেবে’।

৮ জুন চার্টার্ড বিমানে ইংল্যান্ড যাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ইংল্যান্ড পৌছে ওল্ড ট্রাফোর্ডে দুই সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে থাকার পর এক সপ্তাহ অনুশীলন করবেন তারা। ৮ জুলাই সাউদাম্পঠনে অনুষ্ঠিত হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। পরের দুই টেস্ট ১৬ ও ২৪ জুলাই হবে ম্যাচ ওল্ড ট্রার্ফোডে। সব টেস্টই হবে রুদ্ধদার স্টেডিয়াম ও জীবাণুমুক্ত পরিবেশে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস