Alexa পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় স্ত্রীর হাত ভাঙলেন স্বামী

পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় স্ত্রীর হাত ভাঙলেন স্বামী

দিনাজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:০৩ ২৭ অক্টোবর ২০১৯  

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

দিনাজপুরে স্ত্রীর করা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলার জামিন নিতে এসে কারাগারে গেছেন স্বামী। রোববার মামলা পরিচালনাকারী আইনজীবী অ্যাডভেঅকেট মাজহারুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযুক্ত স্বামী মহা-হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক অডিট ভবন কর্মকর্তা এস এ এস সুপারিন্টেডেন্ট ফারুক হোসেন। তিনি বিরল উপজেলার কালিয়াগঞ্জ গোছহাটা গ্রামের নজিব উদ্দীন আহমেদ ছেলে।

গত ২২ অক্টোবর দিনাজপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের স্বামী ফারুক হোসেন জমিন চাইলে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক শরীফুদ্দিন আহমেদ জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয়।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, স্ত্রী ফারিয়া আফসানা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা হওয়ায় বিভিন্ন অজুহাতে যৌতুক দাবি করেন স্বামী ফারুক হোসেন। চাহিদা মোতাবেক যৌতুক না দিতে পারায় নেমে আসে শারীরিক নির্যাতন। সন্তান না থাকায় স্বামী ফারুক হোসেন পরকীয়া প্রেমে আসক্ত হয়ে পড়েন।

পরকীয়া প্রেমের প্রতিবাদ করায় গত ১ জুন ২০১৯ তারিখে স্বামী ফারুক হোসেন ওই শিক্ষিকাকে পিটিয়ে হাত ভেঙে দেন। পরে ফারিয়া বাবার বাড়ি চলে যান। কিছুটা সুস্থ হওয়ার পর তিনি নিজে বাদী হয়ে দিনাজপুর কোতয়ালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম