পবিত্র কাবা একাকি তাওয়াফের স্বপ্নপূরণ হলো যেভাবে

পবিত্র কাবা একাকি তাওয়াফের স্বপ্নপূরণ হলো যেভাবে

ধর্ম ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:০২ ৩১ মে ২০২০   আপডেট: ১৭:১৭ ৩১ মে ২০২০

মহান প্রভুর সান্নিধ্য লাভে আপন মনে একাকি পবিত্র কাবা শরিফ তাওয়াফ করে চলছেন তিনি। - ছবি: সংগৃহীত

মহান প্রভুর সান্নিধ্য লাভে আপন মনে একাকি পবিত্র কাবা শরিফ তাওয়াফ করে চলছেন তিনি। - ছবি: সংগৃহীত

সম্প্রতি পবিত্র কাবা শরিফ তাওয়াফের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ভাইরাল হয়। তাতে দেখা যায়- একা একা কোনো এক ব্যক্তি পবিত্র কাবা ঘর তাওয়াফ করছেন। পুরো কাবা চত্ত্বর নিরব নিস্তব্ধ। কোনো লোকের অস্তিত্ব নেই। নেই কোনো আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এরই মাঝে মহান প্রভুর সান্নিধ্য লাভে আপন মনে একাকি তাওয়াফ করে চলছেন এক ব্যক্তি। এ যে ২০ বছরের লালিত স্বপ্নপূরণ...

একাকি তাওয়াফের স্বপ্নপূরণের কাহিনী: ২০ বছর আগের কথা। অপরিচিত সৌভাগ্যবান এক ব্যক্তি। তিনি হজ করতে গিয়েছিলেন। তিনি মিনায় অবস্থিত ‘মসজিদ আল-খাইফ’-এ এক স্বপ্ন দেখেন। তিনি তার এ স্বপ্নে ব্যাখ্যা জানা জন্য একজন ইসলামিক স্কলার খুঁজতে থাকেন। তিনি দোভাষীদের সাহায্য নেন এবং একজন আলেমের কাছে যান।

ইসলামিক স্কলারদের মধ্যে অন্যতম একজন ছিলেন- শায়খ মুহাম্মাদ আল-রুমি। তিনি ওই ব্যক্তির স্বপ্নের বিবরণ শোনলেন। তিনি ওই ব্যক্তির স্বপ্নের ব্যাখ্যায় বলেন- ‘আপনি সৌভাগ্যবান ব্যক্তি যে, একদিন আপনি একাকি পবিত্র কাবা শরিফ তাওয়াফ করবেন। আপনি একাকি আল্লাহ তায়ালার এ ঘর একেবারেই একাকি তাওয়াফ করবেন।’

এ স্বপ্নের ব্যাখ্যা শুনে সে সময় অন্যান্য লোকেরা বলেছিলেন এটা একেবারেই অসম্ভব। ওই লোকটির সন্দেহ হচ্ছিল, পুরো তাওয়াফ বন্ধ করে শুধু তার জন্য একাকি তাওয়াফের ব্যবস্থা কী করে সম্ভব!

লোকটি তখন (শায়খ মুহাম্মাদ আল-রমিকে) বলেছিলেন, আপনি কি জানেন? পুরো কাবা ঘরের তাওয়াফ থামিয়ে আমার জন্য একাকি তাওয়ারে ব্যবস্থা করে দেবেন? যেখানে তিনি একাকি কাবা শরিফ তাওয়াফ করবেন আর মহান প্রভুর দরবারে হাজিরা দিয়ে তাঁকে (আল্লাহকে) ডাকবেন।

যাই হোক, সময় অতিবাহিত হয়ে চলল। ওই ব্যক্তির স্বপ্নে কথা অনেক ইসলামিক স্কলারই দিয়েছিলেন।

মহামারি করোনা পরিস্তিতিতে কাবা শরিফে তাওয়াফ ও জনমাবনশূণ্য হবে এমনটিই বা কে জানতো? আর মহামারির সময়ে ওই ব্যক্তিই বা কিভাবে পবিত্র নগরী মক্কায় উপস্তিত হবেন, যখন কোভিড-১৯ এর কারণে কাবার সব প্রবেশ পথই সিলগালা বা বন্ধ। এমনকি পুরো বিশ্ব থেকে সৌদি আরবের প্রবেশের পথগুলো যেখানে পুরোপুরি বন্ধ।

লকডাউনের এ পরিস্থিতিতে কেবল স্থানীয়দের জন্যই সীমিত পরিসরে নিয়ম মেনে কাবা শরিফ তাওয়াফের ব্যবস্থা ছিল। যদিও এ তাওয়াফের দৃশ্যও একেবারেই কম উপস্থিতি দেখা গিয়েছিল। যা এখনও অব্যাহত।

মহামারি করোনায় আক্রান্তের এ সময়ে রমজানের একদিন এ ব্যক্তি এসে উপস্থিত। তিনি মসজিদে হারামে। সেদিন কাবা চত্বরে কোনো লোক ছিল না। অজানা এ সৌভাগ্যবান ব্যক্তি পবিত্র কাবা শরিফ তাওয়াব করতে যান আর তিনি নিজেই একাকি তাওয়াফ শুরু করেন। এ ব্যক্তির আশেপাশে পুরো কাবা চত্বরে কেউ নেই। তিনি একাকি তাওয়াফ করে চলছেন। তিনি একাকি আপন মনে মহান প্রভুকে স্মরণ করতে করতে নিরব নিস্তব্ধ কাবা শরিফের চত্বরে তাওয়াফ করে চলেছেন। আর আল্লাহকে স্মরণ করছেন। এ যে ২০ বছর আগে দেখা তার স্বপ্নের পুরোপুরি বাস্তবায়ন। স্বপ্নে যে ব্যাখ্যা করেছিলেন শায়খ মুহাম্মাদ আল-রুমি।

সম্প্রতি শায়খ আহমদ আল খুদাইর এর বন্ধু একাকি তাওয়াফের বিষয়টি শেয়ার করেন। এ ব্যক্তি স্বপ্ন বাস্তবায়ন হয়েছে। তিনি একাকি কাবা শরিফ তাওয়াফ করেছেন। শায়খ মুহাম্মদ আল-রুমির স্বপ্নে ব্যাখ্যাও সত্যে পরিণত হয়েছে।

দেখুন ভিডিও >>>

তথ্যসূত্র : দিইসলামিকইনফরমেশন.কম

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে