পবিত্র এক গাছ, বয়স ২২৫০ বছর

পবিত্র এক গাছ, বয়স ২২৫০ বছর

মো. হাসানুজ্জামান ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:৪৯ ১৮ মে ২০২০  

ছবি: জয়া শ্রী মহা বোধি, পবিত্র গাছ 

ছবি: জয়া শ্রী মহা বোধি, পবিত্র গাছ 

প্রকৃতির অপরিহার্য অংশ গাছ। অক্সিজেন তৈরি এবং বাতাস থেকে কার্বন ডাই অক্সাইড দূরীকরণে গাছের বিকল্প নেই। পরিবেশের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণেও গাছ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। 

বিশ্ব জুড়ে প্রায় তিন ট্রিলিয়নের বেশি গাছ আছে। অর্থাৎ প্রকৃতির সর্বত্রই গাছের উপস্থিতি। তবে কিছু বৃক্ষ যেগুলো বয়স, আকার আকৃতির জন্য ভিন্নভাবে মনোযোগ আকর্ষণ করে। তেমনই কয়েকটি বৃক্ষ নিয়ে আজকের লেখা।

হাইপারিয়ানহাইপারিয়ান, বিশ্বের সবচেয়ে উঁচুগাছ 

বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু গাছ নিয়ে অনেকের মধ্যেই কৌতূহল জন্মাতে পারে। এটাই স্বাভাবিক। পৃথিবীর সবচেয়ে উঁচুগাছ একটি উপকূলীয় রেডউড গাছ। বিশেষজ্ঞরা গাছটির নাম দিয়েছেন, হাইপারিয়ান। এর প্রজাতিগত নাম সেকোইয়া সেম্পর্ভেনস। যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর ক্যালিফোর্নিয়ায় হাইপারিয়ান উপকূলীয় রেডউড গাছটি অবস্থিত।

এটির উচ্চতা ৩৭৯ দশমিক তিন ফুট যা বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘ জীবন্ত গাছ। ২০০৬ সালের আগস্ট মাসে ক্রিস অ্যাটকিন্স এবং মাইকেল টেলর ক্যালিফোর্নিয়ার রেডউড ন্যাশনাল পার্কে গাছটি আবিষ্কার করেন। রেডউড ন্যাশনাল পার্কের নির্জন পাহাড়ি অঞ্চলে গাছটির অবস্থান। বিজ্ঞানীদের মতে, গাছটির বয়স ৭০০ থেকে ৮০০ বছরের মধ্যে। 

জেনারেল শেরম্যানজেনারেল শেরম্যান, বৃহৎ গাছ 

বিশ্বের বৃহত্তম গাছ সিকোয়াইডেন্ড্রন। তবে গাছটি জেনারেল শেরম্যান হিসেবেই পরিচিত। যুক্তরাষ্ট্রের গৃহযুদ্ধের খ্যাতনামা কমান্ডার এবং রাজনীতিবিদ জেনারেল উইলিয়াম টেকমস শেরম্যানের নামে গাছটির নামকরণ করা হয়েছে। ক্যালিফোর্নিয়ার সিয়েরা নেভাদার পাহাড়ি অঞ্চলের সিকোইয়া জাতীয় উদ্যানে গাছটির অবস্থান। বিশ্বের বৃহত্তম এই গাছটির বয়স অনুমানিক ২ হাজার ৭০০ বছর।

জেনারেল শেরম্যান গাছের ব্যাস ২৫ ফুট এবং উচ্চতা ২৭৫ ফুট। এটি আয়তনের দিক থেকেও বৃহত্তম গাছ। এর আয়তন প্রায় ৫২ হাজার ৫০০ ঘনফুট। পৃথিবীতে বেঁচে থাকা বৃহত্তম জীব মনে করা হয় এই বৃক্ষটিকে। যদিও এ বিষয়ে বিতর্ক আছে। তারপরও জেনারেল শেরম্যান বৃক্ষটি প্রকৃতির একটি জীবন্ত বিস্ময় হিসেবেই টিকে আছে। 

পান্ডোপান্ডো, প্রাচীনতম জীব     

পান্ডো বৃক্ষ পৃথিবীতে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখা প্রাচীনতম জীব। পান্ডো লাতিন শব্দ। পান্ডো শব্দ দ্বারা কোনো একটি বিশেষ গাছকে বুঝায় না বরং পুরো গাছের কলোনিকে বুঝায়। গাছের বয়স নির্ধারণ করার অন্যতম মানদণ্ড গাছের কাণ্ডের বয়স নির্ণয় করা। বেশিরভাগ গাছ মূল, কাণ্ডের সঙ্গেই মরে যায়। তবে বেশ কিছু গাছ অছে কাণ্ড মরে গেলেও মূল জীবিত থাকে এবং সেখান থেকে নতুন গাছ জন্মে। এই প্রজাতির গাছ ক্লোনের মাধ্যমে একটি বৃহৎ কলোনির মতো তৈরি করে নেয়। 

মাটির উপরে নতুন কাণ্ডের জন্ম হয় ঠিকই কিন্তু মাটির নিচে গাছটির পুরাতন মূলই থাকে। এই মূল অনেকটা সংযুক্তভাবে নেটওয়ার্কের মতো ছড়িয়ে থাকে। নতুন জন্ম নেয়া কাণ্ডের জেনেটিক বৈশিষ্ট্য থাকে অভিন্ন। যে কারণে এই প্রজাতির গাছগুলোর বয়স নির্ধারণ করা হয় মূলের মাধ্যমে। যুক্তরাষ্ট্রের ইউটাতে পান্ডো কলোনির আনুমানিক বয়স প্রায় ৮০ হাজার বছর। এখানকার পান্ডো গাছগুলো জেনেটিক্যালি অভিন্ন। ইউটাতে প্রায় ৫০ হাজার পান্ডো কলোনির কাণ্ড রয়েছে। একই মূল থেকে গাছের কান্ডগুলোর জন্ম হয়েছে।  

জয়া শ্রী মহা বোধিজয়া শ্রী মহা বোধি, পবিত্র গাছ 

পৃথিবীতে পবিত্রতম গাছ কোনটি তা নির্ধারণ করা প্রায় অসম্ভব কাজ। এ সম্পর্কে অনেক যুক্তি, তর্ক, আলোচনা হতে পারে। তবে শ্রীলংকার অনুরাধাপুরায় অবস্থিত জয়া শ্রী মহা বোধি গাছটি পবিত্র গাছ হিসেবে উপাসনা করে বৌদ্ধরা। এটি মূলত একটি অশ্বত্থ গাছ। গাছটির বয়স প্রায় দুই হাজার ২৫০ বছরেরও বেশি। এটি বিশ্বের প্রাচীনতম ঐতিহাসিক ধর্মীয় গুরুত্ববহ গাছ হিসেবে পরিচিত। গাছটি খ্রিষ্টপূর্ব ২৮৮ অব্দে রোপণ করা হয়েছিল। ধারণা করা হয়, এটি মানুষের ইচ্ছাকৃতভাবে রোপণকৃত প্রাচীনতম গাছ। 

মেথুসেলাহমেথুসেলাহ, প্রাচীনতম গাছ   

মেথুসেলাহ নামক গাছটির অবস্থান উত্তর ক্যালিফোর্নিয়ার ইনিয়ে ন্যাশনাল ফরেস্টে। এটি মূলত একটি ব্রিস্টেলকোন পাইন গাছ। সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে প্রায় ১০ হাজার ফুট উঁচুতে গাছটির অবস্থান। ধারণা করা হয়, মেথুসেলাহর বয়স প্রায় পাঁচ হাজার বছর। গাছটির যাতে কোনো ক্ষতি না হয় সেজন্য স্থানটিতে জনগণের প্রবেশে বিধি-নিষেধ আছে। এমনকি গাছটির কোনো ছবিও উন্মুক্ত করা হয়নি। 

সূত্র: টেনট্রি

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস