Alexa নড়াইলে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, গোপনে দাফনের চেষ্টা

নড়াইলে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, গোপনে দাফনের চেষ্টা

নড়াইল প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ০৪:০১ ৬ অক্টোবর ২০১৯  

পাঞ্জেরী নূর ঝুমুর

পাঞ্জেরী নূর ঝুমুর

নড়াইল সদরের গোবরা গ্রামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু ও গোপনে দাফনের চেষ্টা নিয়ে তোলপাড় চলছে।

মৃত পাঞ্জেরী নূর ঝুমুর ওই গ্রামের দক্ষিণপাড়ার মো. লিয়াকত হোসেন নূরের মেয়ে। তিনি লোহাগড়ার ইতনা গ্রামের সরদার রিয়াজ জামানের স্ত্রী।

শুক্রবার দুপুরে ঢাকার সাভারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক পাঞ্জেরীকে মৃত ঘোষণা করেন। শনিবার সকালে বাবার বাড়িতে তাকে দাফনের প্রস্তুতি নেয়ার সময়ই বিষয়টি জানাজানি হয়।

পাঞ্জেরীর পরিবার জানায়, কয়েকদিন ধরে পাঞ্জেরী তার ফেসবুকে বিভিন্ন আবেগঘন পোস্ট দিচ্ছিলেন। ৩ অক্টোবর এক পোস্টে তিনি লেখেন, ‘পশুরাও আজকাল হয়ে উঠছে অনেক বেশি মানবিক, আর মানুষ হচ্ছে পশুর চেয়েও দ্বিগুণ হারে পাশবিক।’

ওইদিন আরেকটি পোস্টে লেখেন ‘তুমি ঘুমিয়ে পড়লেই আমার রাত জাগার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ছোট হতে থাকে ক্ষণজন্মা স্মৃতিদের ভাঁজে ভাঁজে রাখা ন্যাপথলিনের আকার।’

পরিবারের সদস্যদের ধারণা, দাম্পত্য কলহের কারণেই পাঞ্জেরীর মৃত্যু হয়েছে।

পাঞ্জেরীর স্বামী বলেন, পাঞ্জেরী অনেক অভিমানী আর আবেগপ্রবণ ছিলো। ছোটখাটো বিষয় নিয়ে ওর সঙ্গে প্রায়ই মনোমালিন্য হতো। শুক্রবার আমার মা পিজি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলো। ওই সময় পাঞ্জেরী আমাকে ফোন দিয়ে বাসায় আসতে বলে। আমি মাকে রেখে আসতে পারিনি। এরপরই এ ঘটনা ঘটে।

নড়াইল সদর থানার এসআই হাবিব বলেন, গোপনে ওই গৃহবধূর দাফনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির সময় তার গলায় গলায় লাল দাগ, থুতনির নিচে দাগ, জিহ্বা দাতের সঙ্গে আটকানো, দুই চোখের চারপাশে লাল দাগ দেখা গেছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর