নৌকার প্রচারণায় ব্যস্ত তাপসের বড় ভাই

নৌকার প্রচারণায় ব্যস্ত তাপসের বড় ভাই

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৫৯ ২৭ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ২০:০৯ ২৭ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের পক্ষে নিয়মিত গণসংযোগ করে যাচ্ছেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ।

নৌকার পক্ষে গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন তাপসের বড় ভাই শেখ ফজলে শামস পরশ। সোমবার দুপুরে রাজধানীর সূত্রাপুর থানাধীন ৪২,৪৩,৪৪ নম্বর ওয়ার্ডে নৌকার পক্ষে গণসংযোগ করেন তিনি। এরপর বাহাদুর শাহ পার্ক থেকে শুরু করে জর্জ কোর্ট এলাকা, রায় সাহেব বাজার, ন্যাশনাল হাসপাতাল হয়ে লক্ষ্মীপুর কবি নজরুল সরকারি কলেজের সামনে এসে গণসংযোগ ও প্রচার মিছিল শেষ করেন।

গণসংযোগে উপস্থিত ছিলেন যুবলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব মামুনুর রশীদ,যুবলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা সাহাবউদ্দিন সাহা, ঢাকা-৬ আসনের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ইমরান হোসেন, সূত্রাপুর থানার কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ইকবাল হোসেন পিউলসহ কেন্দ্রীয় টিম, সূত্রাপুর থানার নির্বাচন পরিচালনা কমিটির মহানগর সমন্বয়ক, ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সারোয়ার হোসেন বাবুসহ অনেকেই। 

এসময় শেখ ফজলে শামস পরশ  নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, একটি সফল নির্বাচন আমাদের দারপ্রান্তে এসে গেছে। এই মুহূর্তে অপশক্তিগুলো ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এই ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে সব নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। ভোট দিবে জণগণ, বিজয় নিশ্চিত করবে জণগণ। তাই প্রতিটি ভোটারের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাইতে হবে। 

আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করতে নেতাকর্মীরা রাতদিন  কাজ করে যাচ্ছেন। এজন্য সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন পরশ।

এর আগের তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে বিএনপির সর্মথিত মেয়র প্রার্থী ইশরাক পন্থী লোকজনের হামলায় আহত যুবলীগ নেতাকর্মীদের চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেন।

সেখানে সাংবাদিকেদর এক প্রশ্নের জবাবে যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, এই হামলার সুষ্ঠু তদন্ত ও সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানাচ্ছি।  আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর প্রতি জোর দাবি থাকবে- হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার।

ডেইলি বাংলাদেশ/জাআ/এসএএম