Alexa নিষেধাজ্ঞা শেষে সাগরে ইলিশ শিকারিরা

নিষেধাজ্ঞা শেষে সাগরে ইলিশ শিকারিরা

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৩৯ ৩১ অক্টোবর ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে আবারো নদী ও সাগরে মাছ শিকারে নামছে উপকূলীয় এলাকা বরগুনার পাথরঘাটার জেলেরা। বুধবার রাত ১২টা থেকে কয়েকশ ট্রলার নিয়ে সাগরে মাছ স্বীকারে নেমেছেন তারা। এবার সাগর ও নদীতে ইলিশের পরিমাণ বাড়বে বলে তারা আশা করছেন। 

ইলিশ শিকারে নিষেধাজ্ঞার কারণে ক্ষতিপূরণ হিসেবে জেলেদের ২০ কেজি করে চাল বরাদ্দ দেয়া হয়ছে সরকারের পক্ষ থেকে। নিষেধাজ্ঞার সময়ে সরকারের বরাদ্দকৃত চাল জেলেরা পেয়েছেন। 

মৎস্য অধিদফতরের সূত্রানুযায়ী, নিষেধাজ্ঞার এ সময়ে মা ইলিশ ডিম ছেড়েছে। কয়েকদিন অপেক্ষা করলেই মিলবে কাঙ্খিত ইলিশ। ৯ থেকে ৩০ অক্টোবর নিষেধাজ্ঞার সময় ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. হুমায়ূন কবির নদীতে অভিযান চালিয়ে একজনকে আটক করে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাকে তিন হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এসময় ৪৪হাজার ৩শ মিটার জাল জব্দ করে প্রশাসন। পাথরঘাটায় নিবন্ধিত জেলে রয়েছেন ১৪ হাজার ৩৫০ জন। এর মধ্যে আট হাজার ৪৬১ জেলের জন্য ২০ কেজি করে চাল বরাদ্দ করা হয়েছে।

জেলেরা জানান, নিষেধাজ্ঞা থাকায় তারা ২২দিন মাছ শিকার থেকে বিরত ছিলেন। শুধু মাছ ধরাই একমাত্র পেশা হওয়ায় এ দিনগুলোতে অলস সময় পার করতে হয়েছে তাদের। ফের মাছ ধরা শুরু হয়েছে। আশা করছেন প্রচুর ইলিশ ধরা পড়বে।

এ বিষয় পাথরঘাটা উপজেলা মৎস কর্মকর্তা জয়ন্ত কুমার বলেন, মা ইলিশ যাতে নিরাপদে ডিম ছাড়তে পারে সে জন্য ৯ থেকে ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত নদী ও সাগরে ইলিশ ধরা, মজুদ, বাজারজাতকরণ ও পরিবহন নিষিদ্ধ ছিল। এই আইন বাস্তবায়নে মৎস্য অধিদফতর, নৌ-বাহিনী, কোস্টগার্ড, জেলা ও উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ এবং স্থানীয় মৎস্য দফতরের উদ্যোগে ব্যাপকভাবে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

মৎস্য সম্পদ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ও জেলেদের উপকারের স্বার্থেই সরকারের এ আইন। আইন বাস্তবায়নের লক্ষেই জেলেদের উদ্বুদ্ধ করা হয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় সচেতনতা বিষয়ক সভা-সমাবেশ হয়েছে। এতে স্থানীয় জেলেদের মধ্যে সচেতনতা এসেছে। যে কারণে বিগত বছরগুলোর চেয়ে এবারের মা ইলিশ সংরক্ষণ অনেক বেশি সফল।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস