Alexa নিশাম ছক্কা মারার পরেই মারা যান তার কোচ 

নিশাম ছক্কা মারার পরেই মারা যান তার কোচ 

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৪০ ১৮ জুলাই ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

কিউই অলরাউন্ডার জিমি নিশামের কাছে এ যেনো বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতো। যার কাছে ছোটবেলায় খেলা শিখেছিলেন, প্রিয় সেই গুরু মারা গেছেন। দুঃখের বিষয়, ফাইনাল ম্যাচ চলাকালীন সুপার ওভারে জিমি নিশামের ছক্কা মারার পরপরই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

বিশ্বকাপ ফাইনালের শেষে জিমি নিশাম টুইট করেছিলেন, ‘বাচ্চারা, খেলাধুলাকে পেশা বানিও না। কেক-বিস্কুট বানাও কিংবা অন্য কিছু করো। ৬০ বছর বয়সে মোটাতাজা হয়ে মনে সুখ নিয়ে মরো, তাও ভালো।’ 

ফাইনাল হারের পর নিশামের এই টুইটটা তার ম্যাচ হারের কষ্ট বলেই ধরে নিয়েছিলেন অনেকে। তবে তার কষ্টের কারণ ছিল মূলত প্রিয় কোচের মৃত্যুই। ফাইনালের চরম উত্তেজনাপূর্ণ সুপার ওভার দেখতে গিয়ে নিজেকে আর নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি নিশামের ছোটবেলার কোচ ডেভিড জেমস গর্ডন।

নিশাম টুইট করে বলেন, ‘ডেভ গর্ডন, আমার হাইস্কুল শিক্ষক, আমার কোচ ও বন্ধু। খেলার প্রতি তোমার ভালোবাসাটা সংক্রামক ছিল। মূলত তাদের কাছে, যাদের সৌভাগ্য হয়েছিল তোমার কাছ থেকে শিক্ষা নেয়ার ও তোমার অধীনে খেলার। এমন একটা ম্যাচের শেষ পর্যন্ত তুমি ছিলে, এটাই আমার কাছে অনেক বড় ব্যাপার। আশা করি তোমাকে গর্বিত করতে পেরেছি আমি। সবকিছুর জন্য ধন্যবাদ। তোমার আত্মার শান্তি কামনা করি।’

বিশ্বকাপ ফাইনাল এবারই প্রথম সুপার ওভারে গড়ায়। সুপার ওভারে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিতে নামেন মার্টিন গাপটিল ও জিমি নিশাম। নিজেদের সুপার ওভারের দ্বিতীয় বলেই বিশাল এক ছক্কা মেরে ব্যবধান কমিয়ে আনেন নিশাম। উত্তেজনাপূর্ণ সেই ছক্কার পরপরই মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েন গর্ডন। ঘটনাটি জানিয়েছেন তার মেয়ে লিওনি, ‘সুপার ওভার চলার সময় একজন নার্স আসে বাবাকে দেখার জন্য। সে তখনই বলে, বাবার শ্বাসপ্রশ্বাসের গতি পরিবর্তিত হচ্ছে। আমার মনে হয়, নিশাম যখন ছক্কাটা মারল, বাবা সেটা দেখেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।’

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল/এসআই

Best Electronics
Best Electronics