নাব্যতা সংকট, আজ বসেনি পদ্মাসেতুর ৩৫তম স্প্যান

নাব্যতা সংকট, আজ বসেনি পদ্মাসেতুর ৩৫তম স্প্যান

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:৫৯ ৩০ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৩:০৩ ৩০ অক্টোবর ২০২০

নাব্যতা সংকটের কারণে আজ বসানো হচ্ছে না পদ্মাসেতুর ৩৫তম স্প্যান। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

নাব্যতা সংকটের কারণে আজ বসানো হচ্ছে না পদ্মাসেতুর ৩৫তম স্প্যান। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

নাব্যতা সংকটের কারণে আজ বসানো হচ্ছে না পদ্মাসেতুর ৩৫তম স্প্যান। পূর্বনির্ধারিত সিডিউল অনুযায়ী শুক্রবার সেতুর মাওয়া প্রান্তে ৮ ও ৯ নম্বর পিয়ারের ওপর ৩৫তম স্প্যানটি বসানোর পরিকল্পনা ছিলো। তবে নাব্যতা সংকট কেটে গেলে আগামীকাল শনিবার অথবা রোববার স্প্যানটি বসানো হতে পারে। 

পদ্মাসেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের শুক্রবার ডেইলি বাংলাদেশকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, পূর্বনির্ধারিত সিডিউল অনুযায়ী আজ শুক্রবার স্প্যানটি বসানোর পরিকল্পনা ছিলো। এতে দৃশ্যমান হতো মূল সেতুর ৫ হাজার ২৫০ মিটার। তবে নির্ধারিত স্থানে অনেক পলি জমেছে। সাধারণ সময় সেখানে ৭০-৮০ ফিট গভীরতা থাকে কিন্তু বর্তমানে গভীরতা রয়েছে ৬-৭ ফুট। পানির এত কম গভীরতায় ৩ হাজার ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন স্প্যানটি আনা সম্ভব হয়নি।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মাসেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো কর্পোরেশন। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে পদ্মাসেতুর কাঠামো। সেতুর ওপরের অংশে যানবাহন ও নিচ দিয়ে চলবে ট্রেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ