Alexa নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে স্থগিতাদেশ দিতে অস্বীকৃতি সুপ্রিম কোর্টের

নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে স্থগিতাদেশ দিতে অস্বীকৃতি সুপ্রিম কোর্টের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৫২ ২২ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৩:৫৯ ২২ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) বিরুদ্ধে স্থগিতাদেশ দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

বুধবার সুপ্রিম কোর্টে দেশটির প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতির বেঞ্চ নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে ১৪০টিরও বেশি করা আবেদনের শুনানিতে অংশ নেন।

এ সময় সুপ্রিম কোর্টের বিচারকরা দেশটির ক্ষমতাসীন সরকারকে এই আইনের বৈধতার চ্যালেঞ্জ জানিয়ে করা আবেদনের জবাব দিতে চার সপ্তাহের সময় দেন।

মামলাকারীর তরফে কৌঁসুলি তথা কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল আদালতে আবেদন করেন, মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত সিএএ ও জাতীয় জনসংখ্যা পঞ্জি (এনপিআর)-প্রক্রিয়া যেন স্থগিত রাখা হয়।

এদিন প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ জানিয়ে দেয়, কেন্দ্রের তরফের বক্তব্য না শুনে কোনো স্থগিতাদেশ জারি করা হবে না। একইসঙ্গে, শুনানি সাংবিধানিক বেঞ্চেও পাঠানো হতে পারে বলে জানানো হয়।

খবর অনুযায়ী, অধিকাংশ মামলাতেই এ আইনকে অসাংবিধানিক উল্লেখে করে তা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়েছে। কিছু মামলায় এই আইনের সাংবিধানিক বৈধতা নিয়েই প্রশ্ন তোলা হয়েছে। আবার কিছু আবেদনে এই আইনের ওপর স্থগিতাদেশ চাওয়া হয়েছে। আবেদনকারীরা বলেছেন, ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্বের সুযোগ দেয়ায় এই আইন সমান অধিকারের পরিপন্থী।

এদিকে, সুপ্রিমকোর্ট ছাড়াও দেশের বিভিন্ন হাইকোর্টেও সিএএ নিয়ে মামলা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। একসঙ্গে শুনানির জন্য সব মামলা হাইকোর্ট থেকে শীর্ষ আদালতে নিয়ে আসার আবেদন করে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই মতে, সব মামলা এখন শীর্ষ আদালতেই শোনা হবে।

উল্লেখ্য, দেশটিতে গত ১০ জানুয়ারি বহুল বিতর্কিত এই নাগরিকত্ব আইন কার্যকর হয়। এর আগে গত বছরের ১১ ডিসেম্বর ভারতের পার্লামেন্টে আইনটি পাস হয়ে যাওয়ার পর দেশটিতে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ শুরু হয়। এই বিক্ষোভে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ২৫ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এখনো দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে এই আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ