Alexa নতুন বছরের সেরা পাঁচ ভ্রমণ গন্তব্য

নতুন বছরের সেরা পাঁচ ভ্রমণ গন্তব্য

ভ্রমণ প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৩:৪৫ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৪:১০ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯

কক্সবাজার

কক্সবাজার

আমাদের দেশে শীতকালে ভ্রমণের প্রবণতা সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। কম্বল আর গরম চায়ের উষ্ণতা ছেড়ে ভ্রমণ করার অসংখ্য জায়গা আছে দেশের মধ্যেই। চলুন জেনে নেয়া যাক এই সময়ে বেড়ানোর সেরা পাঁচটি স্থান সম্পর্কে।

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত

দেশের সর্ববৃহৎ পর্যটন কেন্দ্র ‘কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত’। সাগরের ঢেউয়ের বিশালতায় হারিয়ে যেতে চাইলে বছরের শুরুতেই ঘুরে আসতে পারেন কক্সবাজার। এছাড়া মেরিন ড্রাইভের সুবিশাল রাস্তা কক্সবাজারে যোগ করেছে ভ্রমণের বাড়তি আকর্ষণ। লাবনী ও সুগন্ধা সমুদ্র সৈকত ছাড়াও মেরিন ড্রাইভের রাস্তা ধরে টেকনাফের দিকে গেলে দেখা পাওয়া যাবে হিমছড়ি, ইনানি, শামলাপুর ও হাজামপাড়ার। রামুতে গেলে দেখা মিলবে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের সুন্দর কিছু প্যাগোডা।

আরো পড়ুন: কক্সবাজারের যে দশটি জায়গায় না গেলেই নয়

সাজেক

সাজেক ভ্যালি

রূপসী বাংলা বর্ণনাতীত রূপের একটি ঝলকের নাম সাজেক ভ্যালী। আপনার যদি কখনো মেঘের দেশে ঘুরে বেড়ানোর ইচ্ছে হয়, তাহলে সাজেক ভ্যালিতে যেতে পারেন। এটিকে মেঘের রাজ্যও বলা হয়। কারণ সেখানে গেলে মনে হবে আপনি মেঘের উপরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। চারপাশে মনোরম পাহাড় সারি, সাদা তুলোর মতো মেঘের ভ্যালি আপনাকে মুগ্ধ করবেই। পর্যটনকেন্দ্রটির অবস্থান রাঙামাটি জেলায় হলেও ভৌগলিক কারণে খাগড়াছড়ির দীঘিনালা থেকে সাজেক যাতায়াত অনেক সহজ।

আরো পড়ুন: সাজেক ঘোরার প্ল্যান: দুই দিন এক রাত

সুন্দরবন

সুন্দরবন

শুধু পাহাড় কিংবা সমুদ্র নয়, শীতকালে বনভূমিও আলাদাভাবে সৌন্দর্যপ্রেমীদের আকর্ষণ করে। ইউনেস্কো কতৃক বিশ্ব ঐতিহ্যে জায়গা করে নেয়া প্রায় ৬ হাজার বর্গ কিলোমিটারের এই সুবিশাল ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চলটি ওয়াইল্ড লাইফপ্রেমীদের কাছে যেন এক স্বর্গের নাম। সুন্দরবনে রয়েল বেঙ্গল টাইগার, চিত্রা হরিণ, মায়া হরিণ, কুমির, বানরসহ নানা বৈচিত্র্যময় প্রানীকুলের দেখা মিলে। ৩৩০ প্রজাতির ছোট বড় গাছের সাম্রাজ্য এই সুন্দরবনে কটকা, কচিখালী, হিরণ পয়েন্ট, কোকিলমণি, দুবলার চর, পুটনি দ্বীপ ও মান্দার বাড়িয়াসহ নানান দর্শনীয় জায়গা রয়েছে। লঞ্চে করে গহীন বনে ভ্রমণ, গা ছমছমে এলাকায় বাঘের খোঁজে ভয়ে ভয়ে মাটিতে পা রাখা নিশ্চিতভাবে আপনার ভ্রমণে বাড়তি অ্যাডভেঞ্চারের যোগান দিবে।

আরো পড়ুন: শীতে ঘুরে আসুন গা-ছমছমে সুন্দরবনে

সেন্টমার্টিন

সেন্টমার্টিন দ্বীপ

সেন্টমার্টিন দ্বীপ অপরূপ সৌন্দর্যের লীলাভূমি। দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ এটি, যেখানে রয়েছে সারি সারি নারিকেলের গাছ, সাগরের নীল জলের ও আকাশের নিলীমার এক অপরূপ হাতছানি। পুরো দ্বীপই বৈচিত্র্যতার খনি। জেলেপাড়া, শুটকিপাড়া ও এলাকার নানা দিনযাপনের কাজ পর্যবেক্ষণ ভ্রমণে নতুন মাত্রা যোগ করে। ভ্রমণ মৌসুমে পর্যটকদের ঢল নামে ছোট্ট এই প্রবাল দ্বীপে। টেকনাফের দমদমিয়া থেকে জাহাজে যেতে হয় সেন্টমার্টিন।

আরো পড়ুন: সেন্টমার্টিন ট্যুর প্ল্যান: দুই দিন এক রাত

লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান

শ্রীমঙ্গল

শীতকালে সিলেটের জলবেষ্টিত স্থানগুলো তেমন আকর্ষণীয় মনে না হলেও চায়ের শহর শ্রীমঙ্গল দারুণ! চা বাগানের বাংলোতে বসে শীতের হিম হাওয়া মেখে গরম চায়ের পেয়ালা হাতে বসে থাকা অদ্ভুত রোমাঞ্চের জন্ম দেয়। প্রকৃতিপ্রেমিদের হতাশ হওয়ার কারণ নেই। বাইক্কা বিলের পাখির অভয়াশ্রম কিংবা লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে জীববৈচিত্র দেখতে দেখতে কখন যে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কেটে যাবে বুঝতেই পারবেন না। আর জনপ্রিয় সাতরঙের চা অবশ্যই চেখে আসবেন!

আরো পড়ুন: শীতে শ্রীমঙ্গল, খেয়ে আসুন আট রঙের চা

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে