নতুন প্লাটফর্মে বহিষ্কৃত জামায়াত নেতারা

নতুন প্লাটফর্মে বহিষ্কৃত জামায়াত নেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:০৬ ২৭ এপ্রিল ২০১৯   আপডেট: ০৭:৪৭ ২৮ এপ্রিল ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

জামায়াতের বহিষ্কৃত নেতা ও ছাত্রশিবিরের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মজিবুর রহমান মঞ্জুর নেতৃত্বে নতুন একটি রাজনৈতিক প্লাটফর্মের যাত্রা শুরু করেছে। 

শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে ‘জন আকাঙ্খার বাংলাদেশ’ নামে এ প্লাটফর্মের ঘোষণা দেয়া হয়। 

অনুষ্ঠানে ১৯ দফা’র একটি প্রস্তাবনা উপস্থাপনা করা হয়। এতে বলা হয়, খুব শিগগিরই একটি রাজনৈতিক দলের কার্যক্রম আজ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হলো।

মজিবুর রহমান মঞ্জু বলেন, নতুন রাজনৈতিক দল কোনো ধর্ম বা নির্দিষ্ট আদর্শ ভিত্তিক রাজনৈতিক দল হবে না। বরং এটা হবে জনগণের আশা আকাঙ্খা পূরণে নতুন একটি প্লাটফর্ম। দলের আদর্শ ও বিস্তারিত কর্মসূচি পরে ঘোষণা করা হবে বলেও উল্লেখ করেন সাবেক এই জামায়াত নেতা। তবে আপাতত নিজেই এই প্লাটফর্মের সমন্বয়ের দায়িত্বে রয়েছেন বলেও জানান মজিবুর রহমান মঞ্জু।

অনুষ্ঠানে মঞ্জু’র উদ্যোগের সঙ্গে সংহতি ও একাত্মতা প্রকাশ করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী, মানবতাবিরোধী অপরাধ সংক্রান্ত মামলায় জামায়াতের সাবেক আইনজীবী তাজুল ইসলাম, জামায়াতের অঙ্গ সংগঠন ন্যাশনাল ডক্টরস্ ফোরামে’র সাবেক নেতা, বর্তমান রোকন (সদস্য) ও চিকিৎসক অধ্যাপক আবদুল হাই মিনার, চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষক ড. কামাল উদ্দিন, ছাত্রশিবিরের সাবেক নেতা ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার জুবায়ের আহমেদ ভূঁইয়া, এয়ারফোর্সের সাবেক কর্মকতা মোহাম্মদ সালাউদ্দিন, ব্যবসায়ী নাজমুল হুদা অপু, ইসলামী আলোচক মাওলানা আব্দুল খালেক, সাবেক উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক, সংস্কৃতি কর্মী মোস্তফা নূর।

এর বাইরে মুজিবুর রহমান মঞ্জু’র আহবানে পর্যবেক্ষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক নয়াদিগন্তের নিয়মিত কলামিস্ট গৌতম দাস, লেখক সুকৃতি মণ্ডল, নারী অধিকার কর্মী রুবি আমাতুল্লাহ, শিক্ষাবিদ অধ্যাপিকা দিলারা চৌধুরী, সাবেক মন্ত্রী নাজিমউদ্দিন আল আজাদ।

এছাড়া, নতুন এই উদ্যোগের সমর্থক হিসেবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা, গাজীপুর, কুমিল্লা মহানগরী ছাত্রশিবিরের বিভিন্ন পর্যায়ের সাবেক কয়েকজন নেতা।

এরআগে ‘পদত্যাগ-বহিষ্কার জামায়াতের কৌশল, আসছে নতুন নামে’ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল ডেইলি বাংলাদেশ। প্রতিবেদন প্রকাশের পর বিভিন্ন মহলে শুরু হয় নানা কানাঘুষা। জনমনে প্রশ্ন ছিল কারা দেবে দলটির নেতৃত্ব আর জামায়াতের নীতি থেকে কতটুকুই বা সরে আসবে এই সংস্কারপন্থীরা?

ডেইলি বাংলাদেশের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছিল, ‘৮০’র দশকের ছাত্রশিবিরের নেতৃত্ব রাজনীতির মাঠে আসছে নতুন রাজনৈতিক দল ‘ইসলামিক প্রোগ্রেসিভ পার্টি’ (আইপিপি)। একাত্তরে বিতর্কিত নয় এমন জামায়াত নেতারা সমবেত হবেন এই দলে। কোনো ধর্ম বা নির্দিষ্ট আদর্শ ভিত্তিক রাজনৈতিক দল হবে না এটি। তবে ইসলামী দল হিসেবে জামায়াত আগের জায়গায় থেকে যাবে। 

রাজনৈতিক দলটির ‘নাম’ ঘোষণা না হলেও শেষ পর্যন্ত সত্য হলো সেই কানাঘুষা। অবশেষে নতুন রাজনৈতিক প্লাটফর্ম নিয়ে আসলো জামায়াতের সংস্কারপন্থীরা। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই