নজরদারীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেইক তথ্য প্রদানকারী গুজব প্রচারকারীরা

নজরদারীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেইক তথ্য প্রদানকারী গুজব প্রচারকারীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৫৯ ৩১ মার্চ ২০২০   আপডেট: ২০:১৪ ৩১ মার্চ ২০২০

সংগৃহীত

সংগৃহীত

জাতীয় পর্যায়ে জনস্বার্থে বা নিরাপত্তা জনিত কারণে বিরাজমান কোন বিষয়ে গুজব প্রতিরোধকল্পে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি গোয়েন্দা সংস্থাগুলো সকল সময়েই সক্রিয়ভাবে কাজ করে থাকে। বর্তমান সময়েও তারা করোনাভাইরাস সম্পর্কিত গুজব প্রতিরোধে কাজ করছে। কিন্তু পর্যবেক্ষিত হয় যে, কতিপয় সরকার বিরোধী ব্যক্তি বা মহল সরকারকে হেয় করার উদ্দেশ্যে সম্প্রতি ‘জেকে ব্রেকিং নিউজ’  নামের একটি নিউজ পোর্টাল ব্যবহার করে ২০১৭ সনে ভারতের একটি পত্রিকায় প্রকাশিত “Fake News Buster: Trending Spam/Hoax for April, 2017” শিরোনামের একটা খবর হতে হুবহু বাংলায় অনুবাদ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়াচ্ছে যে, আগামীকাল থেকে সবার মোবাইল ফোনের কল রেকর্ড করা হবে, এমনকি হোয়াটস আপ, টুইটার এবং ফেসবুক একাউন্টও মনিটরিং করা হবে (সংবাদটির স্ক্রিন শট দেয়া হল)। 

ব্যাঙ্গালোর মিরর নিউজ পোর্টাল এ ২০১৭ সনে প্রকাশিত প্রতিবেদনটির স্ক্রিনশট

এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায় যে, এই ধরনের গুজব সৃষ্টিকারীদেরকে নজরদারিতে রাখা হচ্ছে। এটা সরকারকে হেয় এবং করোনাভাইসারের মহামারীর মত উপদ্রুত সময়ে  মানুষের মধ্যে অযথা আতঙ্ক সৃষ্টি করতেই একটি মহল কর্তৃক পরিকল্পিতভাবে করা হচ্ছে। এই ধরণের গুজবে কান না দেয়ার জন্যে তারা জনসাধারণকে অনুরোধ জানান। 

উল্লেখ্য যে, মূলত সরকার বিরোধী একটি মহল সুযোগ পেলেই কোনো দুর্যোগ বা বিশেষ সময়ে গুজব প্রচার করে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করে থাকে। গুজবটিও একই উৎস হতে করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়। জনগণের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টির জন্য যারা এ ধরণের গুজব ছড়াচ্ছে, তাদেরকে  আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানিয়েছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এস/এসআই