ধর্ষণে মাদরাসাছাত্রী অজ্ঞান, স্ত্রী পরিচয়ে হাসপাতালে ভর্তি করল যুবক

ধর্ষণে মাদরাসাছাত্রী অজ্ঞান, স্ত্রী পরিচয়ে হাসপাতালে ভর্তি করল যুবক

সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৫৭ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৭:১৯ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

সিংগাইর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ছাড়পত্র

সিংগাইর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ছাড়পত্র

মানিকগঞ্জের সিংগাইরে এক মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর অজ্ঞান অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করেছেন যুবক। সেখানে ওই ছাত্রীকে নিজের স্ত্রী পরিচয় দেন তিনি।

শনিবার ওই উপজেলার গোবিন্দল ফেরাজী পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত রুবেল সিংগাইর পৌর সদরের গোবিন্দল উত্তর পাড়ার লাভলু মিয়ার ছেলে।

ধর্ষণের শিকার ছাত্রী জানান, দুই মাস আগে রুবেলের সঙ্গে তার প্রেম হয়। শনিবার সকালে বিয়ের কথা বলে তাকে মোটরসাইকেলে তুলে নেন রুবেল। সারাদিন বিভিন্ন স্থানে ঘুরিয়ে গোবিন্দল ফেরাজী পাড়ার মতি মিয়ার পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে দুইবার ধর্ষণ করেন। ওই সময় রুবেলের বন্ধু বাইরে পাহারায় ছিলেন। এতে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তার জ্ঞান ফেরে। সেখানে তিনি জানতে পারেন। রুবেল তাকে স্ত্রীর পরিচয়ে হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক অমিত কুমার তরফদার বলেন, ওই ছাত্রীর ক্ষতস্থানে পাঁচটি সেলাই করা হয়েছে। নার্সরা তার দেখভাল করছেন।

ইউপি চেয়ারম্যান দেওয়ান মাহবুবুর রহমান মিঠু বলেন, বিচারের জন্য এসেছিল ভুক্তভোগীর পরিবার। বিষয়টি স্পর্শকাতর হওয়ায় তাদের থানায় পাঠানো হয়েছে।

সিংগাইর থানার ওসি আব্দুস সাত্তার মিয়া বলেন, এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ করেননি। পুলিশ পাঠিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর