ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে, শিক্ষক গ্রেফতার

ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে, শিক্ষক গ্রেফতার

খুলনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৪১ ৫ এপ্রিল ২০২০   আপডেট: ১৭:৫৮ ৫ এপ্রিল ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

খুলনার পাইকগাছায় স্কুলছাত্রীর মাকে ধর্ষণ করে আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে তরিকুল ইসলাম নামে এক স্কুলশিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার রাতে স্কুলশিক্ষক তরিকুল ইসলামকে পর্নোগ্রাফি ও নারী নির্যাতন দমন আইনে তার নিজ বাড়ি থেকে আটক করা হয়। তিনি পাইকগাছা পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সরল গ্রামের আবু দাউদ আহমেদের ছেলে এবং গজালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

পুলিশ জানায়,  গত ২০১৪ সাল থেকে ২০১৯ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত উপজেলার রেজ্জাকপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন তরিকুল ইসলাম। ওই সময় ওই স্কুলেরই দ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে প্রাইভেট পড়ানোর সুযোগে ছাত্রীর মায়ের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলেন তিনি। এ সময় সমস্ত আপত্তিকর ঘটনা তার মোবাইলে ধারণ করেন। পরবর্তীতে গজালিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বদলি হওয়ার পরও তার সঙ্গে বারবার একইরূপ আচরণ করার প্রস্তাব দিলে বিষয়টি ভিন্নখাতে রূপ নেয়। ওই নারী তার কথায় রাজি না হওয়ায় ওই শিক্ষক মোবাইলে ধারণ করা আগের সেই অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়। এরপর গত ১০ ফ্রেব্রুয়ারি রাতে অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ডিলিট করার শর্তে তার সঙ্গে মেলামেশা করতে বাধ্য করেন। তারপরও ছবি ও ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দিলে ওই নারী বাদী হয়ে শনিবার শিক্ষক তরিকুলের বিরদ্ধে পর্নোগ্রাফি ও নারী-শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

পাইকগাছা থানার ওসি মো. এজাজ শফী জানান, ওই নারীর অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় তরিকুলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া আলামত জব্দ করে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরে পাঠানো হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ/এসএএম