Alexa ধর্ষণের পর হত্যা করতেন ‘সিরিয়াল লেডি কিলার’ বাবু

ধর্ষণের পর হত্যা করতেন ‘সিরিয়াল লেডি কিলার’ বাবু

নাটোর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৪৮ ২০ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ১৭:৫৩ ২০ অক্টোবর ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

নাটোরে আট হত্যাকণ্ডের সঙ্গে জড়িত সিরিয়াল লেডি কিলার বাবু শেখ ওরফে কালুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার সন্ধ্যায় নাটোর রেলস্টেশন এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বাবু নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার হরিশপুর গ্রামের বাসিন্দা।

তিনি নাটোরে পাঁচটি, টাঙ্গাইলে দুটি ও নওগাঁয় একটি হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছেন। এর মধ্যে তিনজনকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়।

রোববার দুপুরে নাটোর এসপির কার্যালয়ে এসব তথ্য জানান রাজশাহী রেঞ্জ ডিআইজি একেএম হাফিজ আকতার।

তিনি বলেন, ৯ অক্টোবর নাটোরের লালপুর উপজেলার চংধুপইল এলাকার আনসার সদস্য সাবিনা পারভীন ও বাগাতিপাড়া উপজেলার জয়ন্তীপুর এলাকায় রেহেনা বেগমকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় দুই থানায় মামলা দায়েরের পর মাঠে নামে পুলিশ। তদন্তের ধারাবাহিকতায় প্রথমে নাটোরের সিংড়া থেকে রুবেল আলীকে গ্রেফতার করা হয়। তার দেয়া তথ্যে নাটোর শহরের স্বর্ণকার লিটন খাঁকে গ্রেফতার করা হয়।

এরপর তাদের দেয়া তথ্যে আসাদুল ইসলামকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, দুই হত্যার সঙ্গে জড়িত বাবু শেখ ও রুবেল। শনিবার সন্ধ্যায় বাবু শেখকে গ্রেফতার করা হয়। বাবুকে গ্রেফতারের পর তিনি নাটোরের পাঁচ নারীকে হত্যার কথা স্বীকার করেন।

ডিআইজি হাফিজ আরো বলেন, জেলে সেজে বিভিন্ন জেলায় ঘুরে বেড়াতেন বাবু। পুরুষশূন্য বাড়িতে তার নজর থাকতো। সুযোগ বুঝে রাতে ওইসব বাড়িতে ঢুকে শ্বাসরোধে হত্যার পর টাকা ও স্বর্ণালংকার লুটে নিতেন।

গ্রেফতার তিনজনকে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সাতদিনের রিমান্ডের আবেদন করে পুলিশ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআর