Alexa যে সব দাবিতে ধর্মঘটে ক্রিকেটাররা

যে সব দাবিতে ধর্মঘটে ক্রিকেটাররা

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:০০ ২১ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ১৬:৫৪ ২১ অক্টোবর ২০১৯

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

দাবি আদায়ের লক্ষ্যে অনির্দিষ্টকালের জন্য সব ধরণের ক্রিকেট থেকে বিরত থাকার ঘোষণা দিয়েছেন ক্রিকেটাররা। এর মধ্যে জাতীয় দলের ক্যাম্প থেকে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটও অন্তর্ভুক্ত। অবশ্য বয়সভিত্তিক ক্রিকেট এর আওতায় এখনও আসেনি।

সোমবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সিদ্ধান্ত জানান তারা। দেশীয় ক্রিকেটের বর্তমান বিভিন্ন অব্যবস্থাপনার কারণেই দাবিগুলো উঠে এসেছে।

সংবাদ সম্মেলনে ১১ দফা দাবি পেশ করেন সাকিব-তামিম-মুশফিকরা। দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত এই ধর্মঘট চলবে বলে জানান তারা।

১. ক্রিকেটার স্বার্থ দেখভালের সংগঠন ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অব বাংলাদেশ (কোয়াবের) বর্তমান কোনো কার্যক্রম না থাকায় বর্তমান কমিটিকে অবিলম্বে পদত্যাগ করতে হবে। 

২. প্রিমিয়ার লিগ আগের মত করতে হবে। বিদেশি ক্রিকেটারদের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক আগের মতো বাড়াতে হবে। বিদেশি লিগের মতো বিপিএলেও ক্রিকেটারদের হাতে প্লেয়ার্স ড্রাফটে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সুযোগ দিতে হবে। 

৩. এ বছর না হোক, তবে পরের বছর থেকে আগের মত বিপিএল হতে হবে, লোকাল ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক বাড়াতে হবে। গ্রাউন্ডস সুবিধা ও মাঠের ক্রিকেটে আন্তর্জাতিক মানের ভালো বল দিয়ে খেলা পরিচালনা নিশ্চিত করতে হবে। 

৪. প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ ফি এক লাখ, বেতন বাড়াতে হবে, বারো মাস কোচ ফিজিও দিতে হবে। ক্রিকেটারদের ফিটনেস পরীক্ষা আলাদা আলাদা বিভাগে অনুষ্ঠিত হবে। তাদের অনুশীলনও ঢাকামুখী না করে বিভাগীয় পর্যায়ে রেখে সুবিধা নিশ্চিত করা। 

৫.  ডেইলি অ্যালাউন্স ১৫০০ টাকায় কিছু হয় না, তাই বাড়াতে হবে, ট্রাভেল প্লেন ভাড়া দিতে হবে, হোটেল ভালো হতে হবে। 

৬. চুক্তিভূক্ত ক্রিকেটারের সংখ্যা ও বেতন বাড়াতে হবে । 

৭. দেশি সব স্টাফদের বেতন বাড়াতে হবে, কোচ থেকে গ্রাউন্ডস, আম্পায়ার সবার বেতন বাড়াতে হবে। 

৮. ঘরোয়া ওয়ানডে বাড়াতে হবে, বিপিএলের আগে আরেকটি টি-টোয়েন্টিতে খেলতে চায়। 

৯. ঘরোয়া ক্যালেন্ডার নির্দিষ্ট করতে হবে। 

১০. বিপিএলের পাওনা টাকা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে । 

১১. ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ দুইটির বেশি খেলা যাবে না এমন নিয়ম তুলে দিতে হবে। সুযোগ থাকলে সবাই খেলবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস/সালি