Alexa দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালে আবরার হত্যার বিচার দাবি ১৪ দলের

দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালে আবরার হত্যার বিচার দাবি ১৪ দলের

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:১২ ১১ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ০০:৩১ ১২ অক্টোবর ২০১৯

ছবি- ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি- ডেইলি বাংলাদেশ

দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনাল গঠন করে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের বিচারের দাবি জানিয়েছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোট।

শুক্রবার দুপুরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ১৪ দলের এক জরুরি সভায় এ দাবি জানানো হয়।

সভা শেষে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেন, দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনাল গঠন করে ফাহাদ হত্যার বিচার করতে হবে। স্বল্প সময়ের মধ্যে এসব খুনিদের বিচার দাবি জানাচ্ছি। আশা করছি দ্রুতই এ হত্যাকাণ্ডের বিচার হবে।

হত্যাকাণ্ডের পরে তাৎক্ষণিকভাবে সেখানে বুয়েট ভিসির উপস্থিত না হওয়ার বিষয়টা দুঃখজনক উল্লেখ করে তিনি বলেন, একজন ভিসির কাছে এ ধরণের আচরণ আশা করি না। আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন হই যখন দেখি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো প্রশ্নবিদ্ধ হয়। এসব ঘটনার বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া উচিত।

তিনি আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি দেয়া উচিত। দায়িত্বশীল যোগ্য ব্যক্তিকে এ ধরণের উচ্চ পদে বসানো উচিত।

নাসিম বলেন, কিছু অশুভ শক্তি এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের পায়তারা করছে। বিএনপি এ ঘটনার বিচার যতটা না চায় তার চেয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারে চেষ্টা করছে। এ বেদনাদায়ক ঘটনায় আবরারের পিতা মাতাসহ পরিবারের সবার প্রতি ১৪ দল সহানুভূতি জানাচ্ছে।

আগামী ২২ অক্টোবর ১৪ দল ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে সমঝোতা চুক্তি হয়েছে সেটা নিয়ে গোলটেবিল আলোচনা করা হবে। সেই সঙ্গে আগামী ২৩ অক্টোবর ১৪ দল রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে আরেকটি গোলটেবিল আলোচনা করবে বলেও জানান নাসিম।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী,  জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু, উপ-দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, জাতীয় পাটির (জেপি) সাধারণ সম্পদাক শেখ শহীদুল ইসলাম, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ/আরএ