দুর্বল হওয়ার আগে বাংলাদেশে যেসব ক্ষয়ক্ষতি করেছে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান

দুর্বল হওয়ার আগে বাংলাদেশে যেসব ক্ষয়ক্ষতি করেছে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১০:৫৬ ২১ মে ২০২০   আপডেট: ১১:০৬ ২১ মে ২০২০

ছবিঃ ডেইলি বাংলাদেশ

ছবিঃ ডেইলি বাংলাদেশ

বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদফতরের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের তথ্য অনুযায়ী ক্ষমতা হারিয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে সুপার সাইক্লোন আম্ফান। এর আগে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়ে দক্ষিণাঞ্চলীয় সাতক্ষীরা এলাকা দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান।

এখন পর্যন্ত সাতক্ষীরার সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত চারটি উপজেলা হচ্ছে - শ্যামনগর, আশাশুনি, কালিগঞ্জ এবং সাতক্ষীরা সদর। ঘূর্ণিঝড়টি শ্যামনগরের সর্ব দক্ষিণের লোকালয় মুন্সীগঞ্জ সংলগ্ন সুন্দরবন দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে এই ঘূর্ণিঝড়টি।

সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল বলেন, অন্তত চারটি উপজেলার ২৩টি পয়েন্টে বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এখন পর্যন্ত অন্তত পাচ থেকে সাতটি পয়েন্ট দিয়ে পানি প্রবেশ করে বহু চিংড়ি ঘের ও বিস্তীর্ণ গ্রামাঞ্চল তলিয়ে গেছে। এছাড়াও বহু কাঁচা ঘরবাড়ি ও গাছপালা ভেঙে পড়ার খবর পাওয়া গেছে।

সাতক্ষীরায় আমের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এছাড়াও গাছপালা ভেঙে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা রাস্তা থেকে ভাঙা গাছপালা সরিয়ে সড়ক যোগাযোগ পুনরায় চালু করার কাজ শুরু করেছেন বলেও জানান জেলা প্রশাসক।

মুন্সীগঞ্জের সুন্দরবন সংলগ্ন গাবুরার বাসিন্দা একটি চিংড়ি ঘেরের মালিক আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, তার কয়েক একর আকারের চিংড়ি ঘেরটি পানিতে তলিয়ে গেছে। এছাড়াও তার গ্রামের প্রায় কয়েকশো ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। তার গ্রাম সংলগ্ন নদীটির অন্তত দুটি পয়েন্ট থেকে বাঁধ ভেঙে গেছে বলেও জানান তিনি।

সূত্রঃ বিবিসি

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ