Alexa দুই মেয়েকে এতিম বানালেন বাবা!

দুই মেয়েকে এতিম বানালেন বাবা!

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৩৭ ২৩ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৭:১১ ২৩ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

রিকশার গ্যারেজের আয়ে স্ত্রী-দুই মেয়েকে নিয়ে চলছিল জুয়েল মিয়ার সংসার। তবে হঠাৎ গ্যারেজ ব্যবসা লোকসানে পড়ায় মাদকাসক্ত হন তিনি। এরপর বেশ কয়েকবার আত্মহত্যার চেষ্টা করে রেহাই পান। তবে শেষ রক্ষা হলো না তার। গাছের সঙ্গে চাদরের সাহায্যে ফাঁস দিয়ে প্রাণ দিলেন দুই সন্তানের এ বাবা।

এমন ঘটনার বর্ণনা করছিলেন মৃত জুয়েলের স্ত্রী সোমা আক্তার। তিনি জানান, ফতুল্লার ভোলাইল গেদ্দার বাজার এলাকার আজাদ মহাজনের ছেলে জুয়েল। তিনিসহ দুই মেয়েকে নিয়ে একই এলাকার গফুর মিয়ার ভাড়া বাসায় থাকতেন তার স্বামী। রিকশার গ্যারেজ ব্যবসা লোকসানে পড়ায় ভবঘুরে ধরনের আচরণ শুরু করেন জুয়েল। এরপরই মাদকাসক্ত হলে মানসিক পরিস্থিতি আরো কঠিন হয়। এতে বেশ কয়েকবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

তিনি আরো জানান, বুধবার রাত ১২ টার পর ঘর থেকে বের হন জুয়েল। ওই সময় জুয়েল বলেন, আমাকে খোঁজাখুঁজি করিস না। সময় মতো বাসায় ফিরে আসবো। তবে সারারাত বাসায় ফেরেননি তিনি।

সোমা আক্তার জানান, বৃহস্পতিবার সকালে ফতুল্লার ভোলাইল গেদ্দার বাজারের মীরের বাড়ির পেছনে কামালের মাঠের একটি গাছে জুয়েলের ঝুলন্ত মরদেহের খবর পান তিনি।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন বলেন, মাদকাসক্ত জুয়েল কোনো কাজ করতেন না। সেই দুঃখে রাতে গাছের সঙ্গে শরীরের চাদর দিয়ে ফাঁস দেন বলে দাবি করা হচ্ছে। তার মরদেহ সকালে উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। মরদেহটির ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে এলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।
 

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ