Alexa দাফনের ৪ মাস পর চার মরদেহ যাচ্ছে মর্গে

দাফনের ৪ মাস পর চার মরদেহ যাচ্ছে মর্গে

নোয়াখালী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২৩:২৯ ২০ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ২৩:৩০ ২০ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রায় চার মাসে আগে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে স্পিরিট পানে প্রাণ হারান ছয়জন। এরপর দুইজনের ময়নাতদন্ত ও চারজনের ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফন এবং সৎকার করা হয়। তবে ময়নাতদন্ত ছাড়া দাফন করা চারজনের মরদেহ তোলার নির্দেশ দেয় আদালত। এর মধ্যে দুইজনের মরদেহ তোলা হয়েছে।

সোমবার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত মহিন উদ্দিন ও সবুজের মরদেহ কবর থেকে তোলা হয়। মঙ্গলবার আবদুল খালেক, ওমর ফারুক লিটনের মরদেহ তোলা হবে। 

দুই মরদেহ তোলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রোকনুজ্জামান খান ও কোম্পানীগঞ্জ থানার এসআই আনোয়ার হোসেন। ওই সময় তারা উপস্থিত ছিলেন। পরে মরদেহগুলো নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার এসআই আনোয়ার হোসেন জানান, ২০১৯ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর বসুরহাট পৌরসভার ‘রফিক হোমিও হল’ থেকে রেকটিফায়েড স্পিরিট পান করেন নূর নবী মানিক, ওমর ফারুক লিটন, রবি লাল দে, সবুজ, মহিন উদ্দিন ও মুক্তিযোদ্ধা আবদুল খালেক। এরপরই তারা একে একে মারা যান।

তিনি আরো জানান, ওই সময় নূর নবী মানিক ও রবি লালের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে দাফন ও সৎকার করা হয়। তবে বাকি চারজনের মরদেহ ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফন করা হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ