Alexa দাফনের ১১৫ দিন পর তোলা হলো চার মরদেহ

দাফনের ১১৫ দিন পর তোলা হলো চার মরদেহ

নোয়াখালী প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৭:৫৪ ২১ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে দাফনের তিন মাস ২৫ দিন পর স্পিরিট সেবনে মৃত চার জনের মরদেহ কবর থেকে তোলা হয়েছে।

সোমবার ও মঙ্গলবার দুপুরে ওই উপজেলার চরকাঁকড়া ইউপির ৪ নম্বর ওয়ার্ডের আব্দুল খালেক, বসুরহাট পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ওমর ফারুক লিটন, সিরাজপুর ইউপির মোহাম্মদ নগরের মহিন উদ্দিন ও ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মো. সবুজের মরদেহ তোলা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রোকনুজ্জামান খান, কোম্পানীগঞ্জ থানার এসআই মো. আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জানান, ২০১৯ সালের বছরের ২৬ সেপ্টেম্বর রাতে ও ২৭ সেপ্টেম্বর সকালে বসুরহাট পান বাজারের রফিক হোমিও হল থেকে কেনা স্পিরিট পানে ছয় জনের মৃত্যু হয়। ওই ঘটনায় চারজনকে ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফন করা হয়। তাই আদালতের নির্দেশে ময়নাতদন্তের জন্য দাফনের তিন মাস ২৫ দিন পর কবর থেকে মরদেহ তুলে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এসআই আনোয়ার জানান, ওই ঘটনায় অভিযুক্ত রফিক হোমিও হলের মালিক সৈয়দ জাহেদ উল্যাহ ও তার ছেলে সৈয়দ মিজানুর রহমান প্রিয়ম নোয়াখালী কারাগারে আছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর