‘থুথু-ঘাম নিষিদ্ধ হলেও পলিশ ঠিক থাকলে রিভার্স সুইং সম্ভব’

‘থুথু-ঘাম নিষিদ্ধ হলেও পলিশ ঠিক থাকলে রিভার্স সুইং সম্ভব’

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২০:৩৯ ৩ জুন ২০২০  

ভারতের ডান-হাতি পেসার মোহাম্মদ সামি

ভারতের ডান-হাতি পেসার মোহাম্মদ সামি

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে থুথু ও ঘাম নিষিদ্ধ হলেও, রিভার্স সুইং সম্ভব বলে মনে করেন ভারতের ডান-হাতি পেসার মোহাম্মদ সামি। তিনি বলেন, থুথু-ঘাম ব্যবহার না করলেও তার রিভার্স সুইং করাতে কোন সমস্যা হবে না। শুধুমাত্র বলের পলিশ ঠিক থাকলেই চলবে।

ব্যাটসম্যানদের বেকাদায় ফেলতে বাতাসের সহায়তায় সুইংএর জন্য বলে থুথু বা ঘাম দিয়ে এক পাশ উজ্জ্বল রাখেন বোলাররা। কিন্তু করোনাভাইরাসের সংক্রমন ঠেকাতে বলে থুথু বা ঘাম নিষিদ্ধ করতে পারে ক্রিকেটের প্রধান সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। আগামী সপ্তাহে আইসিসি সভায়, এ নিয়ে সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

যদি থুথু বা ঘাম নিষিদ্ধ করা হয় তবে কঠিন হবে বলেও মানেন সামি। অনলাইনে আলাপকালে তিনি বলেন, এতে অসুবিধাই হবে। আমরা শৈশব থেকেই থুথু ব্যবহারে অভ্যস্ত। 

তিনি আরো বলেন, যদি আপনি পেস বোলার হয়ে থাকেন, তবে বলকে উজ্জ্বল রাখতে আপনি থুথু ব্যবহার করবেন। কিন্তু হ্যাঁ, আপনি যদি শুকনো বলের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে পারেন, তবে অবশ্যই রিভার্স সুইং হবে।

অনিল কুম্বলের নেতৃত্বাধীন আইসিসির ক্রিকেট কমিটি অবশ্য বলেছে, থুতু ব্যবহার করা না গেলেও ঘাম দিয়ে বল পালিশ করা যাবে। তবে রিভার্স সুইংএর জন্য ২৯ বছর বয়সী সামি মনে করেন, ‘থুথু এবং ঘাম দু’রকম ভাবে কাজ করে। তাই আমার মনে হয় না এতে কোনও লাভ হবে। আমি আগে থুথু ছাড়া কখনো চেষ্টা করিনি। সব সময়ই ঘাম  দিয়ে বল পলিশ করেছি। এখন কোভিড-১৯ মহামারির কারণে, এটি নিষিদ্ধ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ’।

অস্ট্রেলিয়ার বল প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান কোকাবুরা, বল পালিশের জন্য একটি মোম তৈরি করার কথা জানিয়েছে। কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এটিকে অনুমতি দিতে নারাজ।

আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নির্ধারিত সূচি রয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বকাপ এখনো অনিশ্চিত। তবে যখনই হোক না কেন, বিশ্বকাপ শুরুর আগে অন্তত দু’সপ্তাহ অনুশীলনের সুযোগ দিতে হবে বলে মনে করেন সামি।

তিনি বলেন, আমরা যন্ত্র নই যে,সুইচ অন-অফ করা যাবে। খেলোয়াড় হিসেবে, শরীরে ছন্দের প্রয়োজন রয়েছে। বিশ্বকাপের আগে ১০-১৫ দিনে অনুশীলন ক্যাম্প করতে হবে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএস