Alexa থানচি থেকে আলীকদম, ভায়া ডিম পাহাড়

থানচি থেকে আলীকদম, ভায়া ডিম পাহাড়

ভ্রমণ প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:১১ ২৪ জানুয়ারি ২০২০  

থানচি থেকে আলীকদমের পথ

থানচি থেকে আলীকদমের পথ

অনেকে বলেন, মেরিন ড্রাইভ দেশের সবচেয়ে সুন্দর রাস্তা। কিন্তু আমার মনে হলো বান্দরবানের থানচি থেকে আলীকদমের পথটা এরচেয়েও মনোমুগ্ধকর। বাইক বা সাইকেল রাইডের জন্য দেশের সবচেয়ে থ্রিলিং রাস্তাও বটে! সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় আড়াই হাজার ফুট উঁচু পাহাড়ের উপর দিয়ে আঁকাবাঁকা আর উঁচু-নিচু এ রাস্তা যতটা ভয়ংকর, তারচেয়েও বেশি মনোমুগ্ধকর।

এ পথে চান্দের গাড়িই বেশি দেখা যায়

বান্দরবানের চির সবুজের বুক চিরে নির্মিত দেশের সবচেয়ে উঁচু এ রাস্তার সৌন্দর্যের বর্ণনা করা এতটা সহজ নয়। নিজের চোখে না দেখলে এ রূপ বিশ্বাস হবে না। চারদিকে শুধু সবুজ আর সবুজ। এই মেঘ, এই রোদ! এই অসহ্য গরম, এই অস্বাভাবিক ঠান্ডা! আপনি বাইকে বসে পাহাড়ের বুকের মধ্যে দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন; হঠাৎ দেখলেন- অনেক দূরের কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত! ভাবা যায়?

মেঘের লুকোচুরি

দেশের ভ্রমণ পিপাসু মানুষদের আগ্রহের কেন্দ্রে আছে এ সড়কের ডিম পাহাড়। শীতে কুয়াশা আর বর্ষায় মেঘের কারণে পর্যটকরা ‘বাংলার হিমালয়’ মনে করেন ডিম পাহাড়কে! পর্বতচূড়া, ঝিরি, ঝরনা ও পাহাড়ের সঙ্গে হেলান দেয়া সারি সারি মেঘ এবং দুই পাহাড়ে মাঝে বুক ছিঁড়ে বয়ে যাওয়া সাঙ্গু-মাতামুহুরী নদী এ জনপদকে করে তুলেছে অনন্য সুন্দর।

থানচি থেকে আলীকদমের পথ

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের উত্তাল জলরাশির, সমুদ্রের ঢেউ ও মিয়ানমারের নৌযান দেখা যায় ডিম পাহাড়ের চূড়ায় দাঁড়ালে। এখানে একইদিনে গ্রীষ্ম, বর্ষা ও শীতের আমেজ পাওয়া যায়। প্রচণ্ড গরম, ঝুম ঝুম বৃষ্টি আর রাতে কম্বল টানা শীতের অভিজ্ঞতা অর্জন করতে ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকার পর্যটক ভিড় জমায়।

থানচি থেকে আলীকদমের পথ

মোটর সাইকেল, সাইকেল আর চাঁদের গাড়িতে চড়ে আপনি এ রাস্তায় ঘুরতে পারবেন। তবে এ রাস্তাকে অনুভব করতে হলে আপনাকে অবশ্যই বাইকে চড়তে হবে। যদি আপনার নিজের বাইক না থাকে কিংবা আপনি যদি বাইক চালাতে না পারেন, কোনো অসুবিধা নাই। থানচি বাজার এবং আলীকদম বাজার থেকে বাইক পাওয়া যায়। এরা সারাদিন বহুবার থানচি থেকে আলীকদম আসা যাওয়া করে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে