Alexa তুরস্কে ফুল ফ্রি স্কলারশিপের আবেদন শুরু কাল 

তুরস্কে ফুল ফ্রি স্কলারশিপের আবেদন শুরু কাল 

সাইদুর রহমান তানভীর, ঢাকা কলেজ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৯:৪৮ ৯ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৯:৫০ ৯ জানুয়ারি ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

প্রতি বছরের মতো এবারো ফুল ফ্রি স্কলারশিপের সুযোগ দিচ্ছে তুরস্ক। ২০২০-২১ সালের স্কলারশিপের জন্য আবেদন শুরু হচ্ছে ১০ জানুয়ারি। যা চলবে ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

তুরস্কের শিক্ষাব্যবস্থা উন্নত অনেক দেশের শিক্ষাব্যবস্থার সমমানের স্বীকৃত। ইইউভুক্ত অনেক দেশের তুলনায় তুরস্কের শিক্ষা উন্নত মানের। দুই দশক ধরে শিক্ষাখাতে ব্যাপক আধুনিকায়নের পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিবছর উচ্চশিক্ষার জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে পাঁচ হাজার শিক্ষার্থীকে স্কলারশিপ দেয় তুরস্ক। এ সুবাদে বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী পাড়ি জামায় দেশটিতে।

সাধারণত আবেদন করার এক মাসের মধ্যে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার জন্য রাজধানীর তুর্কি দূতাবাসে ডাকা হয়। মৌখিক পরীক্ষার দুই থেকে তিন মাস পর চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের ই-মেইল করা হয়। নির্বাচন প্রক্রিয়াটি বিশেষজ্ঞ প্যানেলের মাধ্যমে পুরোপুরি স্বাধীনভাবে তুরস্কের সরকারি বৃত্তি প্রদান কর্তৃপক্ষ তুর্কি বুর্সলারি (ইয়েতেবে) পরিচালনা করে।

তুরস্কে ৫০টির বেশি বিশ্ববিদ্যালয় ওয়ার্ল্ড র‍্যাংকিংয়ে উপরের সারিতে। তুরস্কের শিক্ষা ব্যবস্থায় মেডিকেল ও ইঞ্জিনিয়ারিং সেক্টর বেশ উন্নত।

স্কলারশিপের ক্যাটাগরি
অনার্স, মাস্টার্স, এমফিল ও পিএইচডি।

স্কলারশিপের সুযোগ-সুবিধা
     সম্পূর্ণ টিউশন ফি।
     মাসিক বৃত্তি- অনার্সের জন্য ৮০০ লিরা, মাস্টার্সের জন্য ১১০০ লিরা ও পিএইচডির জন্য ১৬০০ লিরা।
     মূল কোর্স শুরু হওয়ার আগে এক বছরের ফ্রি তুর্কি ভাষা শিক্ষা কোর্স।
     সরকারি/বেসরকারি ডর্মিটরিতে বিনামূল্যে থাকার ব্যবস্থা
     প্রথমবার আসা ও কোর্স শেষে নিজদেশে যাওয়ার বিমান টিকেট
     স্বাস্থ্যবীমা।

আবেদনের যোগ্যতা
     অনার্স আবেদনের সর্বোচ্চ বয়স ২১ বছর, মাস্টার্সের জন্য সর্বোচ্চ ৩০ বছর, পিএইচডির জন্য সর্বোচ্চ ৩৫ বছর।
     তুরস্কের কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত থাকা যাবে না।
     ইংরেজি মাধ্যমে পড়তে চাইলে (IELTS, TOFEL, GRE, GMAT) লাগবে। সাধারণত তুরস্কের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে তুর্কি ভাষায় শিক্ষা দেওয়া হয়।

স্কলারশিপ আবেদনের বিজ্ঞপ্তি

এ বৃত্তির জন্য প্রাথমিকভাবে দুটি যোগ্যতার উপর ভিত্তি করে শিক্ষার্থীদের নির্বাচন করা হয়। প্রথমত, একাডেমিক রেজাল্ট। অর্থাৎ অনার্সের জন্য এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় ৭০% নম্বর (তবে মেডিকেলের জন্য ৯০% নম্বর) এবং মাস্টার্স-পিএইচডির জন্য অনার্স ও মাস্টার্সে ৭৫% নম্বর থাকতে হবে। দ্বিতীয়ত, এক্সট্রা কারিকুলাম অ্যাক্টিভিটিস। অর্থাৎ কোনো সামাজিক, সাংস্কৃতিক, অর্থনৈতিক, একাডেমিকসহ বিভিন্ন জাতীয়-আন্তর্জাতিক সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত থাকা, অর্থাৎ এ ক্ষেত্রে সম্পৃক্ততা গুরুত্বপূর্ণ। এ ছাড়া বিভিন্ন জাতীয়-আন্তর্জাতিক সিম্পোজিয়াম-সেমিনারে ওয়ার্কশপ বা অংশগ্রহণ করে থাকলে তা আবেদনের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

বৃত্তির আবেদন করার সময় বিশ্ববিদ্যালয় এবং সাবজেক্ট বাছাই করতে হয়। এ ক্ষেত্রে যাঁদের রেজাল্ট ভালো এবং ওপরে উল্লেখিত সব যোগ্যতা রয়েছে, তাঁরা তুরস্কের ভালো বিশ্ববিদ্যালয়গুলো চয়েজ করতে পারেন। আর যারা যোগ্যতার দিক থেকে একটু দুর্বল, তাঁরা অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় বাছাই করে দিলে বৃত্তি পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তুরস্কে জুন, জুলাই ও আগস্ট—এ তিন মাস গ্রীষ্মের বন্ধ থাকে। আর প্রতিবছর একাডেমিক সেশন শুরু হয় সেপ্টেম্বরে। অর্থাৎ প্রতিবছর আপনি তিন মাস ছুটি পাচ্ছেন। যেখানে ফুলটাইম কাজ করার সুযোগ রয়েছে।

আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয়
     জাতীয় পরিচয়পত্র, পাসপোর্ট অথবা জন্ম নিবন্ধন সনদের ইংরেজি কপি।
     প্রাতিষ্ঠানিক সকল পরীক্ষার সনদপত্র।
     প্রাতিষ্ঠানিক সকল পরীক্ষার ট্রান্সক্রিপ্ট।
     সদ্যতোলা এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি।
     IELTS/TOFEL, GRE, GMAT ইত্যাদির সার্টিফিকেট। (যদি আপনার আবেদনকৃত বিশ্ববিদ্যালয় সেগুলো চেয়ে থাকে)
     দুইটি রেফারেন্স লেটার। এ ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং যারা এই মুহূর্তে চাকরি করছেন তারা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছ থেকে একটি হলে ভালো হয়।

উপরোক্ত সব ডকুমেন্ট স্ক্যান করে পিডিএফ ফাইল বানিয়ে আপলোড করতে হবে।

Statement of Purpose (SOP) এবং  কিছু প্রশ্নের উত্তরের ভিত্তিতে Letter of Intent পাঠানো হয়. (এগুলো আবেদনের সময় সরাসরি লিখতে হবে, আলাদা কাগজে লিখে আপলোড করতে হবে না)

তুরস্কের প্রথম সারির কিছু বিশ্ববিদ্যালয়
তুরস্কের সব বিশ্ববিদ্যালয়ই মানসম্মত। তবে এরমধ্যে কয়েকটি সেরা বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে- মিডল ইস্ট টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটি, আঙ্কারা, বোয়াজিসি ইউনিভার্সিটি, ইস্তাম্বুল, ইস্তাম্বুল টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটি, ইস্তাম্বুল, আঙ্কারা ইউনিভার্সিটি, আঙ্কারা-ইস্তাম্বুল ইউনিভার্সিটি, হাজেতেপে ইউনিভার্সিটি, আঙ্কারা, এগে ইউনিভার্সিটি, ইজমির, ডকুজ এইলুল ইউনিভার্সিটি, ইজমির।

আবেদন পদ্ধতি
আবেদন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ অনলাইনে সম্পন্ন করতে হবে। এ প্রক্রিয়া খুবই সহজ, তবে একটু দীর্ঘ সময়ের কাজ। তুর্কি বুরসলারির ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনার সচল একটি ইমেইল দিয়ে অ্যাকাউন্ট খুলুন। সব তথ্য দিয়ে আবেদন ফরম পূরণ করতে থাকুন। প্রতিটি ধাপ শেষে সেভ দিয়ে পরের ধাপে চলে যান।

আবেদনের অফিসিয়াল লিংক: https://turkiyeburslari.gov.tr/

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর